তাহেরীর সেই ৭ বক্তব্য ভাইরাল

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯; সময়: ৮:১৯ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : সম্প্রতি মুফতি মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন তাহেরীর বেশ কয়েকটি বক্তব্য ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ সব বক্তব্য নিয়ে অভিযোগ উঠেছে- এতে রয়েছে, ওয়াজ মাহফিলের নামে তাহেরী সমাজে বিষবাক্য ছড়াচ্ছে।

ধর্মীয় অনুভূতি ও মূল্যবোধের ওপর আঘাত সৃষ্টির অভিযোগে দাওয়াতে ঈমানী বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মুফতি মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন তাহেরীর বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করা হয়েছে।

রোববার বাংলাদেশ সাইবার ট্রাইব্যুনাল আসসামছ জগলুল হোসেনের আদালতে এ মামলার আবেদন করেন ঢাকা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী সদস্য মো. ইব্রাহিম খলিল।

মামলার বাদী ইব্রাহিম খলিল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তাহেরীর বিরুদ্ধে পিটিশন মামলার আবেদন জমা দিয়েছি।

মামলার অভিযোগে বাদী বলেন, ইসলাম ধর্মে ওয়াজ মাহফিলের মধ্যে নাচ-গান সমর্থন করে না। কিন্তু গিয়াস উদ্দিন তাহেরী তার মাহফিলে এমনটাই করছেন।

তাহেরী ওয়াজ-মাহফিলের নামে অশ্লীলতা ছড়াচ্ছেন বলে মন্তব্য করেন ইব্রাহীম খলিল।

আসুন দেখে নিই তাহেরীর ভাইরাল সেই ৭ বক্তব্য।

‘চা খাবেন? ঢেলে দেই?’

চা খাব? খাই একটু? আপনারা খাবেন? ঢেলে দেই?’ তাহেরীর এই মন্তব্য সবচেয়ে বেশি ছড়িয়েছে। ‘ভাই, পরিবেশটা সুন্দর না, কোনো হৈ চৈ আছে?’ এরই সঙ্গে ছড়িয়েছে আরেকটি মন্তব্য, ‘চা খাচ্ছি। চা খাব? খাই একটু? আপনারা খাবেন? ঢেলে দেই?’

‘বসেন, বসেন, বইসা যান।’

গত বছর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয় কয়েকটি শব্দ, ‘বসেন, বসেন, বইসা যান।’ তাহেরী ওয়াজ মাহফিলে আয়োজিত জিকির অনুষ্ঠানে ওই শব্দগুলো সুর করে বলেন।

‘চিল্লাইয়া মার্কেট ফাউন যাইব?’

ওয়াজ মাহফিলেই তাহেরী বলেন, ‘তাহেরীর মুখ দিয়া যেইডা বাইর হয় হেইডই মার্কেট ফায়। চিল্লাইয়া মার্কেট ফাউন যাইব?’

‘আমি কি কাউকে গালি দিয়েছি?’

তাহেরীর আরেক মন্তব্য, ‘আমি কি কাউকে গালি দিয়েছি? কাহারো বিরুদ্ধে বলতেছি? এরপর দেখবেন সকালে একদল লোকে বলবে তাহেরী ভালা না। আমিও বলি আমি তো ভালা না, ভালা লইয়াই থাইক। কথা কি ক্লিয়ার না ভেজাল আছে?’

‘বুঝলে বুঝপাতা না বুঝলে তেজপাতা’

তাহেরী বলেন, ‘এক এক সময় এক একটা কথা মার্কেটে ছাড়ি, তাহেরীর মুখ দিয়া যেইডা বাইর হয় হেইডই মার্কেট ফায়। চিল্লাইয়া মার্কেট ফাউন যাইব? বুঝলে বুঝপাতা না বুঝলে তেজপাতা।’

‘শরীলে একটা ভাব আইসে না?’

তাহেরী বলেন, ‘মাঝে মাঝে ডাইনে বামে না কইলে ঘুম আইয়া পড়ে। এক ব্যাটা সেদিন আমারে কইতাছে হুজুর বিড়ি খাওয়ার দোয়া কোনডা? আমি কই জীবনে কত দোয়া পড়ছি বাবা বিড়ি খাওয়ার দোয়া তো পাইছি না। হে কয় আল্লাহুম্মা বারেকলানা ফি মা বিড়িটানা। এইডা বলে বিড়ি খাওয়ার দোয়া। পাবলিক এহন মারাত্মক, বাংলা ইংলিশ মিলাইয়া দোয়া বানাইয়া লয়।

কষ্ট হইতেছে আপনার? মোটামুটি শরীলে একটা ভাব আইসে না?’

আমার মন জানে আমি আসলে কী চাই

দর্শক-শ্রোতারা নিজেদের আসনে বসেই চিৎকার করে তাহেরীর প্রশংসা করে। তখন তাহেরী বলেন, ‘ফাম দিস না, ফাম দিস না।’ তিনি বলেন, ‘যা তোরা যত গালি দেস আমার অসুবিধা নাই। আমার মন জানে আমি আসলে কী চাই।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • গাছের সঙ্গে বিবাহবার্ষিকী!
  • ইলন মাস্কের ছেলের নাম X AE A-12 মাস্ক!
  • কোন দেশের মানুষ বেশি আত্মহত্যা করে?
  • মানুষ ছাড়াও পতিতাবৃত্তির সঙ্গে জড়িত যেসব প্রাণীরা
  • অভিশপ্ত এই টেলিফোনের মাধ্যমেই হত্যা করা হয় লাখো মানুষকে
  • ৩৫ বছর পর মুক্তি পাচ্ছে বিশ্বের ‘সবচেয়ে নি:সঙ্গ’ হাতি
  • রাজ্য ও সঙ্গীকে পেতে যুদ্ধ করে এই মাছেরা
  • আকাশ থেকে যেভাবে নিখোঁজ হন প্রথম নারী বৈমানিক
  • বোতলে চিঠি আর স্বামীর শেষাস্থি, দু’বছর পর মিলল স্পেনের সৈকতে
  • বিশ্বের সবচেয়ে দামি ভেড়া
  • ভূস্বর্গ থেকে ভয়ানক এক নগরী এখন কাশ্মীর
  • হাজার বছর আগেও ছিল উন্নত রেস্তোরাঁ, খাওয়ানো হত ব্যুফে
  • নিজের দূর্গন্ধযুক্ত মোজা বিক্রি করেই বছরে আয় ৯৫ লাখ টাকা
  • শ্বেতরোগী হয়েও তিনি বিশ্ব সুন্দরী হলেন যেভাবে
  • দক্ষিণ কোরিয়ার বেগুনী দ্বীপ
  • উপরে