গবেষণায় দেশসেরা ঢাবি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ৯, ২০২২; সময়: ৪:১৫ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ২০২১ সালে বাংলাদেশি গবেষকরা আন্তর্জাতিক জার্নালে ১১ হাজারের বেশি প্রবন্ধ প্রকাশ করেছেন। আন্তর্জাতিক নির্ভরযোগ্য বিজ্ঞানভিত্তিক জার্নাল, বই ও গবেষণা সম্মেলনগুলোর তথ্য নিয়ে কাজ করা ‘স্কোপাস’ থেকে তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করেছে সায়েন্টিফিক বাংলাদেশ নামের একটি অনলাইন ম্যাগাজিন।

সায়েন্টিফিক বাংলাদেশের তালিকা অনুযায়ী, ২০২১ সালে মোট ১১ হাজার ৪৭৭টি বৈজ্ঞানিক ডকুমেন্টস প্রকাশ করে দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো। ২০২০ সালে ৮ হাজার ১৪০, ২০১৯ সালে ৬ হাজার ৩৬৩ ও ২০১৮ সালে এই সংখ্যা ছিল ৫ হাজার ২৩৪টি।

এই তালিকায় শীর্ষে আছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। প্রতিষ্ঠানটি সর্বোচ্চ এক হাজার ২৪৬টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে, যা গত বছরের চেয়ে প্রায় ৫০০ বেশি। আর তাতে প্রথমবারের মতো এক হাজারের মাইলফলক অতিক্রম করল ঢাবি।

তালিকার দ্বিতীয় অবস্থানে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি)। প্রতিষ্ঠানটি ৭০৭টি গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে, যা গত বছরের তুলনায় ২০০টিরও বেশি। ৬৯৩ প্রকাশনা নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট)। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) ৬৮২টি প্রকাশনা নিয়ে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে এবং ৫৫৩টি প্রকাশনা নিয়ে ৫ম স্থান অর্জন করেছে নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়।

এছাড়া তালিকায় থাকা শীর্ষ ১০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে- ষষ্ঠ স্থানে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (৫৩৭) , সপ্তম স্থানে আইসিডিডিআরবি (৫২৩), অষ্টম স্থানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (৪৫৯), নবম স্থানে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (৩৮৫) এবং ১০ম স্থানে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (৩৭৩)।

বরাবরের মতোই ২০২১ সালেও অধিকাংশ প্রবন্ধই ছিল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিসংশ্লিষ্ট। গবেষণার শীর্ষে আছে প্রকৌশল, মেডিসিন, কম্পিউটার সায়েন্স, পরিবেশ বিজ্ঞান, কৃষি, জীববিজ্ঞান, প্রাণরসায়ন, জেনেটিক্স ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিষয়ক গবেষণা।

সায়েন্টিফিক বাংলাদেশ জার্নালে প্রকাশিত নিবন্ধের পাশাপাশি সম্মেলনে উপস্থাপিত প্রবন্ধ, রিভিউ, বইয়ের অনুচ্ছেদ, চিঠি, নোট ও উপ-সম্পাদকীয়, তথ্য প্রবন্ধ, বই, সংক্ষিপ্ত জরিপও বিবেচনায় নিয়ে থাকে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে