রামেক ছাত্রীকে প্রে‌মে বাধ্য করা যুবকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল পুলিশ

প্রকাশিত: জুন ১১, ২০২১; সময়: ৮:৫৬ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী মে‌ডিকেল কলেজের ছাত্রীকে প্রে‌মে বাধ্য করার চেষ্টার অভিযোগ পুলিশের ফেসবুকে দেন এক ছাত্রী। বাংলাদেশ পুলিশের মিডিয়া এন্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স উইং‌কে পাঠা‌নো মেসে‌জের ভি‌ত্তি‌তে ব্যবস্থা নিয়েছে পুলিশ। এ তথ্য জানান বাংলা‌দেশ পু‌লিশের এআই‌জি (মি‌ডিয়া এন্ড পাব‌লিক রি‌লেশন্স) মো. সো‌হেল রানা।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তিনি জানান, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের এক ছাত্রী লিখেছে, এক ব্য‌ক্তি তাকে ভীষন জ্বালাতন করছে। তার সাথে এক সময় সেই লো‌কের পরিচয় ও সম্পর্ক ছিল। একটি কোচিং সেন্টারে পরিচয় হয়েছিল। সেই থেকে সম্পর্ক।

কিন্তু, সম্পর্কের কিছু দিনের মধ্যেই মেয়েটি ছেলেটির মধ্যে কিছু অসঙ্গতি লক্ষ্য করলো। লোক‌টি তার সা‌থে শারী‌রিক সম্প‌র্কে জড়া‌তে চাপ দি‌চ্ছে মে‌য়ে‌টি‌কে। তার কার‌নে মে‌য়ে‌টির লেখাপড়াও নষ্ট হচ্ছে। কিন্তু, মে‌য়ে‌টি‌কে নিয়ে তার বাবা-মায়ের অনেক স্বপ্ন। অনেক কষ্ট করে বড় করেছেন তাকে তার বাবা-মা। তাদের স্বপ্ন কোনো মতেই নষ্ট করতে দিতে চায় না সে। তাই, সে সিদ্ধান্ত নেয়, এই ছেলের সাথে সম্পর্ক চলমান রাখবে না।

কিন্তু লোক‌টি তার সা‌থে সম্পর্ক রাখ‌তে মে‌য়ে‌টি‌কে বাধ্য কর‌তে চাই‌ছে। তার কথায় মে‌য়ে‌টি রা‌জি না হওয়ায় মেয়েটিকে নানাভাবে বিরক্ত করা শুরু করেছে লোক‌টি। মেয়েটির নামে বিভিন্ন ফেইক একাউন্ট খুলে সেখানে তার ছবি দিয়ে মেয়েটিকে নাজেহাল করতে শুরু করে সে। পড়াশুনায় ব্যাঘাত ঘটতে থাকে মে‌য়ে‌টির। মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে সে।

এক পর্যা‌য়ে আই‌নি সহ‌যো‌গিতা চে‌য়ে নানা জায়গায় লি‌খে মে‌য়ে‌টি। এর ফ‌লে, লোক‌টি আরো হিংস্র হয়ে ওঠে। নিরন্তর তাকে নোংরা এসএমএস পাঠিয়ে ও ফোন করে হুমকি দিতে থা‌কে। লোক‌টির পরিবারের কাছে বিচার দিয়েও কোনো সুরাহা হয়নি। এই অবস্থা থেকে মুক্তির কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছিল না মেয়েটি।

এক পর্যায়ে হঠাৎ করেই মিডিয়া এন্ড পাবলিক রিলেশন্স উইংয়ের কথা জানতে পারে মে‌য়ে‌টি। এখানে লিখে তার বিপদের কথা জানিয়ে সে সহযোগিতা চায়। তবে, সে উল্লেখ করে কোনো প্রকার মামলায় সে জড়াতে চায় না। বার্তা পেয়ে মিডিয়া উইং তাৎক্ষনিকভাবে মেয়েটির পাশে দাঁড়ায়। তাকে সকল প্রকার সহযোগিতার আশ্বাস দেয়। এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে লোক‌টির বর্তমান এলাকায় থানা পুলিশকে নির্দেশনা দেয়া হয়।

এর প্রেক্ষিতে, কুমিল্লা জেলার বরুড়া থানার ওসি মোহাম্মদ ইকবাল বাহার মজুমদার অত্যন্ত আন্তরিকতার সাথে মেয়েটির সমস্যা সমাধানে উদ্যোগী হন। লোক‌টির অভিভাবকদের উপস্থিতিতে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিদের সহযোগিতায় লোক‌টির বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা সহজ হয়। পুলিশি সহযোগিতা পেয়ে মেডিক্যাল ছাত্রী মেয়েটি বরুড়া থানা পুলিশ ও সর্বোপরি বাংলাদেশ পুলিশকে তার কৃতজ্ঞতা জানিয়েছে।

মানু‌ষের পা‌শে দাঁঁড়া‌নোর সু‌যো‌গের ক্ষে‌ত্রে একজন পু‌লিশ কর্মকর্তা অত্যন্ত আশীর্বাদপুষ্ট উ‌ল্লেখ ক‌রে মে‌য়ে‌টি লিখেছে, সৃষ্টিকর্তা অনেক পরিকল্পনা করে কিছু মানুষকে পৃথিবীতে পাঠান তাঁর অন্য সকল সৃষ্টির পাশে দাঁড়ানোর জন্য। এ রকম ভাগ্য নিয়ে সবাই পৃথিবীতে আসতে পারেন না। উ‌ল্লেখ্য, মে‌য়ে‌টির অনু‌রো‌ধে উভয়প‌ক্ষের নাম প‌রিচয় প্রকাশ থে‌কে বিরত থাকা হ‌লো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে