শবে কদরে কোন ইবাদত উত্তম

প্রকাশিত: মে ২০, ২০২০; সময়: ৪:২৫ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : আজ রমজানের ২৭তম রাত। শবেকদরের অন্যতম সম্ভাব্য ক্ষণ। মূলত লাইলাতুল কদরের নির্দিষ্ট কোনো তারিখ বা সময় নেই। ২১ রমজান থেকে নিয়ে ২৯ রমজান পর্যন্ত বেজোড় যে কোন রাতই শবে কদর হতে পারে।

পবিত্র শবে কদর মহিমান্বিত একটি রজনী। শবে কদরের অন্য নাম লাইলাতুল কদর। কদরের রাতে অজস্র ধারায় আল্লাহর রহমত বর্ষিত হয়।

এ রাতে এত অধিকসংখ্যক রহমতের ফেরেশতা পৃথিবীতে অবতরণ করেন যে, সকাল না হওয়া পর্যন্ত এক অনন্য শান্তি বিরাজ করে পৃথিবীতে।

রাসুলুল্লাহ (সা.) নিজে ‘লাইলাতুল কদর’ লাভ করার জন্য রমজানের শেষ দশরাত জাগ্রত থেকে ইবাদতে কাটিয়েছেন এবং উম্মতে মুহাম্মাদীকেও সারা রাত জেগে ইবাদত-বন্দেগী করার নির্দেশ দিয়েছেন।

রাসুল (সা.) বলেন, শবে কদরকে নির্দিষ্ট না করার কারণ হচ্ছে যাতে বান্দা কেবল একটি রাত জাগরণ ও কিয়াম করেই যেন ক্ষান্ত না হয়ে যায় এবং সেই রাতের ফজিলতের ওপর নির্ভর করে অন্য রাতের ইবাদত ত্যাগ করে না বসে।

তাই বান্দার উচিত শেষ দশকের কোন রাতকেই কম গুরুত্ব না দেয়া এবং পুরোটাই ইবাদাতের মাধ্যমে শবে কদর অন্বেষণ করা।

এ রাতের মূল আমল হল নিজের গুনাহখাতা আল্লাহ থেকে মাফ করিয়ে নেয়া।

হজরত আয়েশা (রা.) বলেন, একবার আমি রাসুলুল্লাহ (সা.)-কে জিজ্ঞেস করলাম, হে আল্লাহর রাসুল! আপনি বলে দিন যদি আমি জানতে পারি যে, শবেকদর কোন রাতে হবে, তাতে আমি কী বলব?

রাসুল (সা.) বললেন- তুমি বলবে, ‘আল্লাহুম্মা ইন্নাকা আফুউন তুহিব্বুল আফওয়া ফা’ফু আননি।’ (অর্থ) হে আল্লাহ! তুমি ক্ষমাশীল, ক্ষমা করতে ভালোবাস। অতএব, আমাকে ক্ষমা করো। (তিরমিজি)।

লাইলাতুল কদরের ফজিলত অপরিসীম। তাই সারা রাত জাগরণ করে সঠিকভাবে ইবাদত-বন্দেগীতে মনোনিবেশ করা কর্তব্য।

বেশি বেশি নফল নামাজ, তাহাজ্জুদ, সালাতুস তাসবিহ, উমরী কাজা নামাজ, কোরআন তিলাওয়াত, দান-সদকা, জিকির-আজকার, তাসবিহ-তাহলিল, তওবা-ইসতেগফার, দুয়া-দুরূদসহ ইত্যাদি নফল আমলের প্রতি মনযোগী হওয়া একান্ত জরুরি।

আল্লাহর পক্ষ থেকে বান্দাদের অফুরন্ত রহমত ও ক্ষমার ঘোষণা রয়েছে এ সময়টিতে। রাখা হয়েছে হাজার বছরের চেয়ে শ্রেষ্ঠ রজনী ‘লাইলাতুল কদর’।

আল্লাহতায়ালা চান, তাঁর প্রিয় বান্দা এ দশ দিন পূর্ণভাবে নিজেকে সঁপে দেবে প্রভুর প্রেমে। লাইলাতুল কদরকে এ কারণেই লুকিয়ে রাখা হয়েছে, যেন বান্দা পবিত্র এ রজনীর তালাশে কাটিয়ে দেয় পুরো দশটি দিন।

আল্লাহ তার প্রিয় বান্দাদের বলেছেন, হে বনি আদম, তোমাকে আমি সর্বশ্রেষ্ঠ বানিয়েছি। তুমি কি আমার জন্য সময় করতে পারবে না?

আল্লাহর দুয়ার আজ অবারিত, প্রশস্ত, ক্ষমার জন্য উন্মুক্ত। আসুন নিজের দুয়ার ফেলে রেখে প্রভুর দুয়ারে, বসে যাই ইস্তেগফার, তাহাজ্জুদ, তাসবিহ, সদকাহ, তিলাওয়াত আর প্রার্থনায়।

মিলে যেতে পারে ক্ষমা, সৌভাগ্যের ‘লাইলাতুল কদর’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • পাবনায় করোনায় দুই বন্ধুর মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ১১০
  • ভুতুড়ে বিদ্যুৎ বিলের দায়ে ২৯০ জনের শাস্তির সুপারিশ
  • নওগাঁয় চিকিৎসকসহ আরও ২৪ জনের করোনা শনাক্ত
  • রাজশাহীতে ঈদগাহে খেলাধুলা করতে নিষেধ করায় মারপিট
  • ‘পরিস্থিতি ভালো না হওয়া পর্যন্ত সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে’
  • রাবির নেপালী শিক্ষার্থী করোনা আক্রান্ত
  • তানোরে স্ত্রী-সন্তানসহ করোনা মুক্ত ইউএনও
  • রামেকে আরও ৩৭ জনের করোনা শনাক্ত
  • আবারো এন্ড্রু কিশোরের মৃত্যুর গুজব
  • করোনায় আক্রান্ত তিন শতাধিক ব্যক্তি পেয়েছেন রাসিক মেয়র লিটনের উপহার
  • বগুড়ার সান্তাহারে কাবিখার গম নিয়ে উত্তেজনা
  • মেয়র লিটনের সাথে নতুন ডিসি আব্দুল জলিলের সৌজন্য সাক্ষাৎ
  • রাজশাহীতে করোনায় মৃত ২ লাশ নিল না স্বজনরা
  • দেশে একদিনে আরও ৫৫ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ২৭৩৮
  • রাজশাহীতে ফুডপ্যান্ডার রাইডারদের ৫ দফা দাবিতে কর্মবিরতি
  • উপরে