ইউসিসি কোচিংয়ের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ রাবি শিক্ষার্থীরদের

প্রকাশিত: মে ২, ২০১৯; সময়: ৫:৫৩ pm |
নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি : রাজশাহী শাখা ইউনিভার্সিটি কোচিং সেন্টার (ইউসিসি) এর বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ তুলে সংবাদ সম্মেলন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (০২ মে) বেলা ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটেরিয়ায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীরা এ অভিযোগ করেন।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী সানজিদা ঢালী বলেন, ‘চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউসিসি কর্তৃপক্ষ সংবর্ধনার নাম করে বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্সপ্রাপ্ত বিভিন্ন বিভাগের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের তথা আমাদের কাছ থেকে ছবি, মোবাইল নম্বর, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার রোল নম্বর, রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও প্রাপ্ত জিপিত্রসহ ফরম পূরণ করিয়ে নেয়। এসব তথ্য ব্যবহার করে ইউইসিসি ২০১৯ সালে রাজশাহী শাখা থেকে প্রকাশিত প্রোসপেক্টাসে আমাদের ইউসিসি’র শিক্ষার্থী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে আমাদের কেউই ইউসিসিতে কোচিং করিনি। ইউসিসি কর্তৃপক্ষ আমাদেরকে যেভাবে তাদের শিক্ষার্থী হিসেবে উল্লেখ করেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার ও প্রতারণা।’
সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা বলেন, শুধু আইন বিভাগই নয়, অন্য বিভাগেরও বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীর ছবি ব্যবহার করেছে ইউসিসি। দুয়েকদিন আগে সংবর্ধনার জন্য আমাদের মুঠোফোনে ক্ষুদে বার্তা পাঠায় ইউসিসি সাহেব বাজার শাখা। সে অনুযায়ী ১৩ই মে তারা এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন এবং আমাদেরকে ১-১০ই মে তারিখের মধ্যে অনুষ্ঠানের টোকেন সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে।
এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউসিসি রাজশাহী শাখার পরিচালক দেলোয়ার হোসেন অভিযোগ ভিত্তিহীন দাবি করে বলেন, ‘প্রোসপেক্টাসে আমরা যাদের ছবি ব্যবহার করেছি তারা সবাই আমাদের কোচিংয়ের শিক্ষার্থী। সব তথ্য আমাদের কাছে আছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থী যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পেয়েছে তাদের সংবর্ধনার জন্য পরবর্তীতে তথ্য সংগ্রহ করেছি। ওই সময় যদি অন্য কেউ নিজে থেকে ফরম পূরণ করে ফেলতে পারে। সেক্ষেত্রে আমাদের কিছু বলার নেই।’
ইউসিসির ঢাকা হেড অফিসের ম্যানেজার সেলিম বলেন, ‘কেউ যদি ইউসিসিতে কোচিং না করে তাহলে তাদের ছবি ছাপানোর ক্ষমতা আমাদের নেই। রাজশাহী শাখা এমনটা করেছে কিনা জানি না। ওদের সাথে কথা বলে দেখবো। আর এসব বিষয়ে আপনার-আমার মাথা ঘামিয়ে লাভ নেই।’
সংবাদ সম্মেলনে বিভাগের লামিয়া, এষা, মারুফ, মোর্শেদ, তন্বী, আছিয়া, হুমায়ুন কবীর, সাজেদুল হকসহ ১৯ জন শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে