ইফতার ও সেহরির আয়োজনে নিষেধ

প্রকাশিত: এপ্রিল ৫, ২০২১; সময়: ১১:০১ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : করোনাভাইরাস মাহামারীর মধ্যে আসন্ন রোজার মাসে মসজিদে ইফতার ও সেহরির আয়োজনে নিষেধ করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। সোমবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক জরুরি সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

সেখানে বলা হয়, কোরোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে জামায়াতে নামাজ পড়ার ব্যবস্থা করতে হবে। সরকারের জারি করা নির্দেশনার আলোকে আবশ্যিকভাবে ১০টি শর্ত পালন করতে হবে।

মসজিদের প্রবেশদ্বারে হ্যান্ড স্যানিটাইজার বা হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ সাবান-পানি রাখতে হবে এবং সবাইকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে আসতে হবে। প্রত্যেককে নিজের বাসা থেকে ওযু করে, সুন্নত নামাজ ঘরে আদায় করে মসজিদে যেতে হবে এবং ওজু করার সময় কমপক্ষে ২০ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধুতে হবে।

মসজিদে কার্পেট বিছানো যাবে না। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আগে সম্পূর্ণ মসজিদ জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করতে হবে; সবাইকে যার যার জায়নামাজ নিয়ে আসতে হবে। কাতারে নামাজে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে হবে। শিশু, বৃদ্ধ, অসুস্থ ব্যক্তি এবং অসুস্থদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তিরা জামাতে অংশ নেওয়া থেকে বিরত থাকবেন।

সংক্রমণ রোধ নিশ্চিত করতে মসজিদের ওজুখানায় সাবান বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে। মসজিদে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না। সর্বসাধারণের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগ, স্থানীয় প্রশাসন এবং আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনীর নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। মসজিদে ইফতার ও সেহরির আয়োজন করা যাবে না।

মসজিদের খতিব, ইমাম এবং মসজিদ পরিচালনা কমিটিকে এসব বিষয় নিশ্চিত করতে বলেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এসব নির্দেশনা লংঘিত হলে স্থানীয় প্রশাসন ও আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারী বাহিনী সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবে বলে সতর্ক করা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে।

  • 77
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে