২ কোটি ৩৫ লাখ টিকিটের আবেদন, আগ্রহ বেশি আর্জেন্টিনাকে ঘিরেই

প্রকাশিত: এপ্রিল ৩০, ২০২২; সময়: ১২:০৯ pm |
খবর > খেলা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : এখনো সাত মাসের মতো বাকি, কিন্তু ফুটবল বিশ্বকাপ নিয়ে উন্মাদনা, জল্পনা, পরিকল্পনা তো আর অত দিন অপেক্ষায় থাকবে না! কাতার বিশ্বকাপের উন্মাদনা কতটা, সেটি বুঝিয়ে দিচ্ছে ফিফার পরিসংখ্যান। ফিফা জানাচ্ছে, বিশ্বকাপের টিকিট বিক্রির সর্বশেষ রাউন্ডে ২ কোটি ৩৫ লাখ টিকিটের আবেদন জমা পড়েছে।

দর্শকের এই আগ্রহ সবচেয়ে বেশি কোন দলকে ঘিরে? লিওনেল মেসির আর্জেন্টিনা! ফিফার হিসাব অনুযায়ী, ফাইনালের বাইরে যে ম্যাচগুলোর টিকিটের আগ্রহ সবচেয়ে বেশি, তার প্রথম চারটির মধ্যে তিনটিই গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনার তিন ম্যাচ।

সেটির কারণ অবশ্য সাধারণ বিশ্লেষণেই উঠে আসবে। একে তো ব্রাজিলের পাশাপাশি জাতীয় দলগুলোর মধ্যে বিশ্বে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণজাগানিয়া দুই দলের অন্যটি আর্জেন্টিনা, তার উপর এটিই আর্জেন্টিনার জার্সিতে মেসির শেষ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে বলে অনুমান।

গ্রুপ পর্বের পর কোন দল কোথায় কার বিপক্ষে খেলবে, সেটি তো আর এখনই বলা যায় না, শুধু গ্রুপ পর্বের ম্যাচগুলোরই ভেন্যু, দিন, সময়, প্রতিপক্ষ সব নিশ্চিত। সব মিলিয়েই মেসির আর্জেন্টিনার গ্রুপ পর্বের ম্যাচ ঘিরে এত আগ্রহ।

ফিফার বিবৃতি জানাচ্ছে, ১৮ ডিসেম্বরের ফাইনালের পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি আগ্রহের কেন্দ্রে থাকা চারটি ম্যাচ-গ্রুপ পর্বে আর্জেন্টিনা বনাম মেক্সিকো, আর্জেন্টিনা বনাম সৌদি আরব, আর্জেন্টিনা বনাম পোল্যান্ড ও ইংল্যান্ড-যুক্তরাষ্ট্র।

ফাইনালের সবচেয়ে দামি টিকিটের দাম ১ হাজার ৬০০ ডলার-রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিটের প্রায় ৪৫ শতাংশ বেশি! বাংলাদেশি মুদ্রায় খরচ পড়বে প্রায় দেড় লাখ টাকা।

যেসব ম্যাচের টিকিটের জন্য মোট আবেদনের সংখ্যা বরাদ্দকৃত টিকিটের সংখ্যার চেয়ে বেশি হবে, সেসব ম্যাচের টিকিট দেওয়া হবে লটারির ভিত্তিতে। লিটারিতে জিতে কারা টিকিট পেয়েছেন, সেটি আগামী ৩১ মে থেকে জানিয়ে দেওয়া হবে। যদি কোনো ম্যাচের টিকিট বাকি থেকে যায়, সেগুলো বিক্রি করা হবে ‘আগে এলে আগে পাবেন’ ভিত্তিতে।

এখন পর্যন্ত যত আবেদন পড়েছে, তার মধ্যে আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, ইংল্যান্ড, ফ্রান্স, মেক্সিকো, কাতার, সৌদি আরব ও যুক্তরাষ্ট্র থেকেই আবেদনের সংখ্যা বেশি বলে জানিয়েছে ফিফা। বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রক সংস্থার চোখে, কাতার বিশ্বকাপের টিকিটের জন্য ‘ব্যাপক চাহিদা’দেখা দিয়েছে।

এএফপি জানাচ্ছে, সাধারণ মানুষের জন্য প্রায় ২০ লাখ টিকিট বরাদ্দ থাকছে। আর স্পনসর এবং সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের জন্য বরাদ্দ থাকছে ১২ লাখ টিকিট।

তবে টিকিটের দামও এবার আগের চেয়ে বেশিই থাকছে। সংবাদ সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে, ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপের চেয়ে এবার টিকিটের দাম গড়ে ৩০ শতাংশ বেশি।

সবচেয়ে কম দামি টিকিট থাকছে কাতারের মানুষ এবং সেখানে কাজ করতে যাওয়া অভিবাসী শ্রমিকদের জন্য, তাঁরা গ্রুপ পর্বের ম্যাচের টিকিট কিনতে পারবেন ১০ মার্কিন ডলারে। বাংলাদেশি মুদ্রায় ৮৫০ টাকার কিছু বেশি।

আর সবচেয়ে বেশি দাম থাকছে কোন টিকিটের? সেটি যে ফাইনালের টিকিটই হবে, তা বুঝতে তো আর আইনস্টাইন হওয়ার দরকার পড়ে না! এএফপি জানাচ্ছে, ফাইনালের সবচেয়ে দামি টিকিটের দাম ১ হাজার ৬০০ ডলার-রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিটের প্রায় ৪৫ শতাংশ বেশি! বাংলাদেশি মুদ্রায় খরচ পড়বে প্রায় দেড় লাখ টাকা।

এবার দ্বিতীয় দফায় টিকিট বিক্রি হচ্ছে। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে প্রথম দফায় ৮ লাখ ৪ হাজারের কিছু বেশি টিকিট বিক্রি হয়েছিল। সে জায়গায় এবার ২৩ দিনের ‘উইন্ডো’তে টিকিট বিক্রি হচ্ছে ২ কোটি ৩৫ লাখ! এত বেশি আগ্রহের কারণ অবশ্য সহজেই বোঝা যায়।

জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে তো মানুষ টিকিট কিনেছে অনুমানের ওপর ভিত্তি করে, সে সময় উদ্বোধনী ম্যাচ, ফাইনাল, সেমিফাইনাল-উপলক্ষ অনুযায়ী, টিকিট বিক্রি বেশি হয়েছে বলে ধারণা করা যায়।

আর এবার গ্রুপ পর্বে কোন দল কবে কোথায় কার বিপক্ষে খেলবে, সেটি নিশ্চিত হয়েই মানুষ টিকিটের জন্য হুমড়ি খেয়ে পড়ছে। ১ এপ্রিল যে গ্রুপ পর্বের ড্র হয়ে গেছে!

২১ নভেম্বর সেনেগাল ও নেদারল্যান্ডসের ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপের পর্দা উঠবে, ১৮ ডিসেম্বর ৮০ হাজার ধারণক্ষমতার লুসাইল স্টেডিয়ামে হবে ফাইনাল।

কাতারি কর্তৃপক্ষের অনুমান, আরব অঞ্চলের প্রথম বিশ্বকাপ উপলক্ষে প্রায় ১৪ লাখ মানুষ কাতারে ঘুরতে যাবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে