মাঝপথে বন্ধ হয়ে যেতে পারে বিপিএল!

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২২; সময়: ১০:১৪ am |
খবর > খেলা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ওমিক্রনের প্রকোপ বৃদ্ধি এবং সরকারের পক্ষ থেকে নির্দেশনা এলে মাঝপথে বন্ধ হয়ে যেতে পারে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর। এমনই আভাস দিয়েছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক।

উদ্বোধনের দিনই বাতিলের শঙ্কা ঘনীভূত হয়েছিল বিপিএলে। চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে ফরচুন বরিশাল দলটির বাংলাদেশি উইকেটকিপার ব্যাটার নুরুল হাসান সোহান করোনা পজিটিভ হয়েছেন বলে খবর আসে। ম্যাচে নামার আগে খেলোয়াড়দের করোনা পরীক্ষা করার সময় তার টেস্টে পজিটিভ আসে।

জানা গেছে, আজ (২২ জানুয়ারি) আবারও তার করোনা টেস্ট করা হবে। বরিশালের আরেক খেলোয়াড় মুমিন শাহরিয়ারও করোনা পজিটিভ।

এদিকে সাকিবের বরিশাল দলের পরামর্শক নাজমুল আবেদীন ফাহিমও করোনা পজিটিভ হয়েছেন। আসর শুরুর আগে বরিশাল দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বলেছিলেন করোনা সঙ্গে নিয়েই চলার কথা।

কিন্তু অবস্থাদৃষ্টে যা দেখা যাচ্ছে, প্রতিদিনই যদি ক্রিকেটাররা এভাবে কোভিড পজিটিভ হন, তাহলে বিপিএলের অষ্টম আসর যে আইপিএলের মতোই মাঝপথে বন্ধ হয়ে যেতে পারে!

কোভিডের জন্য ক্রিকেটারদের অলিম্পিক প্রটোকলের মধ্যে রেখেছে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সল। অবশ্য তাতেও আটকানো যায়নি সংক্রমণ থেকে। এর মধ্যেই একাধিক ফ্র্যাঞ্চাইজির অন্তত দশজন খেলোয়াড় ও স্টাফের সংক্রমণের খবর পাওয়া গেছে। বিপিএল শুরুর আগেই করোনার ধাক্কা এসেছিল।

প্রথম দফায় সৌম্য সরকারসহ খুলনার বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় করোনা পজিটিভ হন। এরপর বিপিএল শুরুর আগে সংখ্যাটা আরও বাড়তে থাকে।

কিন্তু এরপরও বারবার আসরটি চালিয়ে নেওয়ার কথা বলেন আয়োজকরা। তবে সামনের দিনে তা ভয়াবহ রূপ ধারণ করলে আসতে পারে টুর্নামেন্ট স্থগিতের সিদ্ধান্ত।

তবে স্থিতিশীল পরিস্থিতে বিপিএল চালিয়ে যাওয়ার আশা ব্যক্ত করেছেন বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব হায়দার মল্লিক।

এর আগে করোনার সংক্রম হঠাৎই বেড়ে যাওয়ায় স্কুল কলেজ বন্ধসহ বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকারের। পরিস্থিতির অবনতি হলে বিপিএলেও যে তার নেবিাচক প্রভাব পড়বে তা অনুমান করা যায় সহজেই।

এদিকে টুর্নামেন্টে বৈচিত্র্য আনতে এবং উইকেটের ভিন্নতা বিবেচনায় ঢাকার বাইরে চট্টগ্রাম ও সিলেটে বিপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা বিসিবির। গুঞ্জন আছেন ওমিক্রনের প্রভাবে ভেন্যুর সংখ্যা কমে যাওয়ার।

তবে আপাতত সেই শঙ্কা নেই বলে জানিয়েছেন সদস্য সচিব। ২৫ জানুয়ারি ঢাকা পর্ব শেষ করে বিপিএল যাবে চট্টগ্রামে। সবকিছু ঠিক থাকলে ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগটির ঢাকা ঘুরে পরবর্তী গন্তব্য হবে সিলেট।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে