‘নিউজিল্যান্ডের সফর বাতিলের পেছনে গভীর ষড়যন্ত্র’

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২১; সময়: ১০:৪৪ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : নিরাপত্তা ইস্যুতে আচমকা পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড দল। নিউজিল্যান্ডের সফর থেকে সরে আসার পেছনে গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মনে করেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ। ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও জানান, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বিশ্বসেরা। তাদের কারও কাছেই কোনো হুমকির তথ্য ছিল না। এদিকে আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর নিয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে আভাস দেয় ইসিবি।

নিরাপত্তা শঙ্কায় রাওয়ালপিন্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডে শুরুর কয়েক মিনিট আগে সফর বাতিল করে নিউজিল্যান্ড। কিউইদের এমন সিদ্ধান্তে বিব্রত পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। প্রথম ওয়ানডেতে নির্ধারিত সময়ে টস হয়নি, মাঠেও আসেননি ক্রিকেটাররা। এরপর দুই বোর্ডই জানায়, শুধু প্রথম ওয়ানডে নয় সফরই বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড। দীর্ঘ ১৮ বছর পর পাকিস্তান সফরে গিয়েও কোন ম্যাচ না খেলে ফেরে আসে ব্ল্যাক ক্যাপরা।

এদিকে নিউজিল্যান্ডের এ সফর থেকে সরে আসার পেছনে গভীর ষড়যন্ত্র রয়েছে বলে মনে করেন পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) ইসলামাবাদে এক সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ জানান, ১৮ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটনা এবারই প্রথম ঘটল।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ বলেন, ‌’পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ব্যক্তিগতভাবে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলেছেন। যেখানে পাকিস্তানের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সবচেয়ে ভালো এবং নিরাপত্তা নিয়ে কোনো ধরনের শঙ্কা নেই বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, তাদের কাছে তথ্য আছে স্টেডিয়াম ত্যাগ করার সঙ্গেই দলের ওপর হামলা হতে পারে। তাই তারা সফরটি বাতিল করেছে। বিষয়টির পেছন ষড়যন্ত্র ছিল বলে আমি মনে করি।‌’
এ সময় পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, নিউজিল্যান্ড দলের নিরাপত্তা ইনচার্জ শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে তাদের হুমকির কথা জানান।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও জানান, ‌’নিউজিল্যান্ডের নিরাপত্তা দল চার মাস আগে পাকিস্তানে এসে পর্যবেক্ষণ করে সফরটি ঠিক করেছিল। কিন্তু এখন কেন এমন সিদ্ধান্ত। রাওয়ালপিন্ডিতে ম্যাচের জন্য যথেষ্ট নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল। পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থাগুলো বিশ্বসেরা। তাদের কারও কাছেই কোন হুমকির তথ্য নেই।‌’

এদিকে নিউজিল্যান্ডের এমন সিদ্ধান্তের পর আগামী অক্টোবরে ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর নিয়ে তৈরি হয়েছে শঙ্কা। তবে ইসিবি ভাবছে, তাদের পরিকল্পনা নতুন করে পর্যবেক্ষণের বিষয়টি। তাইতো আগামী ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে পাকিস্তান সফর নিয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে। তবে ইংলিশরা পাকিস্তান সফর থেকে সরে আসলে সেটা বড় এক ধাক্কাই হবে দেশটির ক্রিকেটের জন্য।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে