আইপিএলের বাকি অংশ সেপ্টেম্বরে দুবাইয়ে

প্রকাশিত: মে ২৯, ২০২১; সময়: ২:৩৯ pm |
খবর > খেলা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : করোনায় স্থগিত হওয়া এবারের আইপিএলের বাকি অংশ শেষ করার চেষ্টা করছিল বিসিসিআই। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতে আগামী সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বিসিসিআই।

তিন সপ্তাহের সূচি বের করে ১৮ থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো আয়োজন করা হবে—পিটিআইকে জানিয়েছেন বিসিসিআইয়ের এক সিনিয়র কর্মকর্তা।

২৯ মে বিসিসিআইয়ের বিশেষ সাধারণ সভার পর আরব আমিরাতে আইপিএলের বাকি অংশ আয়োজনের ঘোষণা দেওয়া হতে পারে, জানিয়েছে ক্রিকবাজ।

ফ্র্যাঞ্চাইজি দলগুলোয় করোনা হানা দেওয়ায় ৪ মে স্থগিত হয় আইপিএল। মৌসুমের তখনো ৩১টি ম্যাচ বাকি। এবার বাকি অংশ মাঠে গড়ালে আরব আমিরাতে ৯ কিংবা ১০ অক্টোবর আইপিএল ফাইনাল অনুষ্ঠিত হতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সেই বিসিসিআই অফিশিয়াল পিটিআইকে বলছেন, ‘বিসিসিআই সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলেছে, ১৮ থেকে ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে (আইপিএল) শুরু হতে পারে। তবে ১৮ সেপ্টেম্বর শনিবার এবং ১৯ সেপ্টেম্বর রোববার হওয়ায় ছুটির দিনে শুরু হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।’

ফাইনাল নিয়ে সেই অফিশিয়ালের ভাষ্য, ‘একইভাবে ৯ কিংবা ১০ অক্টোবর ফাইনাল হতে পারে, যেহেতু ছুটির দিন আছে। আমরা সূচি চূড়ান্ত করছি, ১০টি ডাবল হেডার (এক দিনে দুই ম্যাচ), সন্ধ্যায় হবে ৭টি ম্যাচ এবং চারটি মূল ম্যাচ (দুটি বাছাইপর্ব, একটি এলিমিনেটর ও ফাইনাল) দিয়ে ৩১টি ম্যাচ শেষ করা হবে।’

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পাঁচ টেস্টের সিরিজে ম্যানচেস্টারে শেষ টেস্টটি ১৪ সেপ্টেম্বর শেষ হওয়ার কথা। পরের দিন ভাড়া করা বিমানে সেখান থেকে আরব আমিরাতে যাবেন ক্রিকেটাররা—‘বাবল টু বাবল’ স্থানান্তর হবেন খেলোয়াড়েরা।

এ নিয়ে সূত্রের উদ্ধৃতি প্রকাশ করেছে সংবাদ সংস্থা পিটিআই, ‘ভারতীয় দল এবং ইংল্যান্ড দলের যাঁরা যাঁরা যেতে পারবেন, সবাই ভাড়া করা বিমানে ম্যানচেস্টার থেকে দুবাই যাবেন। একইভাবে ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ শেষ করে যাবেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটারেরাও। ইংল্যান্ড ও ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জ থেকে যাওয়া ক্রিকেটাররা তিন দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকবেন।’

এক ফ্র্যাঞ্চাইজি দলের অফিশিয়াল জানিয়েছেন, বিসিসিআই এরই মধ্যে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছে, ‘টুর্নামেন্টের জন্য আমাদের প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে। ১৫ থেকে ২০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।’ এদিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার কথা ১৮ অক্টোবর থেকে।

আইসিসির এই টুর্নামেন্ট ভারত থেকে আরব আমিরাতে নেওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। এই দুটি টুর্নামেন্ট খুব কম সময়ের ব্যবধানে শুরু ও শেষ হওয়ায় সময় বণ্টন নিয়ে সমস্যা হতে পারে, জানিয়েছে ক্রিকবাজ। এদিকে এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) বিসিসিআইকে সব রকম নিশ্চয়তা দিলেও সাধারণত কোনো টুর্নামেন্টের ১০ দিন আগে মাঠ নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে থাকে আইসিসি।

এদিকে সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজ ছিল ভারতের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি হিসেবে এই সিরিজ খেলার কথা ছিল ভারতের। কিন্তু সিরিজটি বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারতীয় বোর্ড (বিসিসিআই)।

পিটিআইকে তাদের সূত্র জানিয়েছে, ‘সিরিজটি কোনোভাবেই হতে পারে না, কারণ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি হিসেবে আইপিএলের চেয়ে ভালো কিছু নেই। এ জন্য সিরিজটি পরে হতে পারে। আগামী বছরের শুরুর দিকে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়ে ভারত অতিরিক্ত ম্যাচও খেলতে পারে।’

এ ছাড়া নভেম্বরে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে দুই টেস্টের সিরিজ খেলার কথা ছিল ভারতের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ কবে শেষ হবে, তার ওপর নির্ভর করে এই সিরিজের সূচিও পাল্টাতে পারে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে