শুক্রবার কোভিড পজিটিভ, রোববার ব্যাটিংয়ে নেমে ৯০ রান!

প্রকাশিত: মার্চ ৭, ২০২১; সময়: ২:০১ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ৩০ ওভার খেলার পর জানা গেল মাঠের এক খেলোয়াড়ের করোনা পজিটিভ। এ খবর শোনার পর পরই তড়িঘড়ি করে ম্যাচ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় ম্যাচ অফিসিয়াল।

শুক্রবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আয়ারল্যান্ড উলভস ও বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের মধ্যকার ম্যাচে ঘটে এ ঘটনা।

ম্যাচ অফিসিয়াল থেকে জানানো হয়, আয়ারল্যান্ডের একাদশে থাকা পেসার রুহান প্রিটোরিয়াস করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। যে কারণে ম্যাচটি ওই দিনের জন্য পরিত্যক্ত করা হয়।

ওই ঘটনার দুই দিনের মাথায় রোববার সেই প্রিটোরিয়াসকে দেখা গেল মাঠে। আইরিশদের হয়ে ইনিংস ওপেন করতে নেমে তিনি করলেন ৯০ রান!

অবিশ্বাস্য হলেও একদিন পরেই তার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। তাই রোববারের বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতে নামতে কোনো বাধা ছিল না তার।

শুধু প্রিটোরিয়াসের বেলায়ই নয়, শনিবার রাতে পাওয়া রিপোর্টে নেগেটিভ হন দুদলের সবাই। তাই সূচি অনুযায়ী রোববার সকালে চট্টগ্রামে শুরু হয় একদিনের ম্যাচের সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

আর ম্যাচে ফিরেই দুর্দান্ত ইনিংস খেললেন একদিনেই করোনা থেকে মুক্তি পাওয়া রুহান প্রিটোরিয়াস।

এদিকে প্রিটোরিয়াসের করোনা পজিটিভ রিপোর্টটি ভুল হতে পারে বলে ধারণা করছেন চট্টগ্রামে থাকা প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন।

ম্যাচ পরিত্যক্ত হওয়ার দিনই গণমাধ্যমকে তিনি বলেছিলেন, আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেটাররা এখানে আসার পর ওদের একজনের পজিটিভ এসেছিল। তাকে ২৪ ঘণ্টা আলাদা রাখা হয়েছিল। পরের পরীক্ষায় নেগেটিভ আসে। এবারও তেমন কিছু হতে পারে। যে ক্রিকেটারের পজিটিভ এসেছে তার কোনো লক্ষণই নেই। হাঁচি-কাশি-জ্বর কিছুই নেই। কিছু থাকলে তো বোলিং করতে পারত না। একদম ঠিক আছে সে।

২৪ ঘণ্টা আইসোলেশনে থেকে ফিরে আজ মাঠে ওপেনার হিসাবে নামেন ৩০ বছর বয়সী প্রিটোরিয়াস। জেমস ম্যাককলামের সঙ্গে মিলে গড়েন ৮৮ রানের উদ্বোধনী জুটি। দ্বিতীয় উইকেটে স্টিফেন ডোহেনির সঙ্গে ৮৫। বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনার রকিবুল হাসানের স্পিনে রিভার্স সুইপ করতে গিয়ে বোল্ড হন প্রিটোরিয়াস। এর আগেই খেলে ফেলেন ১২৫ বলে ৯০ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস।

এ প্রতিবেদন লেখার সময় নির্ধারিত ৫০ ওভারে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ৭ উইকেটে ২৬৩ রান। বাংলাদেশের পক্ষে দুটি করে উইকেট শিকার করেছেন সুমন খান ও রকিবুল হাসান। একটি করে পেয়েছেন মুকিদুল ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে