বিসিবির গাফিলতিতে শঙ্কায় বাংলাদেশ ইমার্জিং দল!

প্রকাশিত: মার্চ ৫, ২০২১; সময়: ২:৩৬ pm |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : একদিন আগেই খবর এসেছিল বন্ধ হয়ে গেছে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল)। একের পর এক ক্রিকেটার করোনা আক্রান্ত হতে থাকায় বাধ্য হয়ে এ সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। ১ মার্চ প্রথমবারের মতো করোনার আক্রমণ হয় পিএসএলে। ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের অস্ট্রেলিয়ান লেগ স্পিনার ফাওয়াদ আহমেদ পজিটিভ হন টেস্টে। এরপর আরও তিনজন করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর এলেও, নির্লিপ্ত ছিল পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড।

কিন্তু গত বুধবার করা টেস্টে আবারও তিন ক্রিকেটার কোভিড পজিটিভ হলে নতুন করে ভাবতে বসে পিসিবি। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে জরুরি বৈঠক ডেকে, বন্ধ করে দেয়া হয় পিএসএলের এবারের মৌসুম। আপাতত সিদ্ধান্তটি মেনে নিলেও, এ ঘটনার জন্য পিসিবিকে দায়ী করে বিবৃতি দিয়েছে পিএসএল টিম কর্তৃপক্ষ।

এদিকে এ ঘটনার পর থেকেই কিছুটা উত্তপ্ত ক্রিকেট দুনিয়া। কিন্তু এত কিছুর পরও একেবারে নির্লিপ্ত ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। জাতীয় দল নিউজিল্যান্ডে থাকায় অনেকটা হাত গুটিয়ে বসে ছিল এর কর্তাব্যক্তিরা। যার ফলস্বরূপ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ল বাংলাদেশ ইমার্জিং দলের সদস্যদের।

নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচের আগে করোনা টেস্ট করার কথা ছিল বাংলাদেশ ইমার্জিং এবং আয়ারল্যান্ড উলভসের সদস্যদের। পরে এর ফলাফল হাতে এলেই কেবল মাঠে নামার অনুমতি দেয়া হয় দলগুলোকে। কিন্তু চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে নিয়মের কোনো তোয়াক্কাই করেনি স্বাগতিক ক্রিকেট বোর্ড। ফলাফল হাতে আসার আগেই মাঠে নামিয়ে দেয়া হয় ক্রিকেটারদের।

এরপর ৩০ ওভার হতেই ফল আসলে চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় সবার। করোনা পজিটিভ আসে আইরিশ পেসার রোহান প্রিটোপ্রিয়াসের। এরপর খুব দ্রুতই তাকে মাঠ থেকে সরিয়ে নেয়া হয়। আপাতত টিম হোটেলে আইসোলেশনে আছেন তিনি।

কিন্তু ছোট্ট একটা নিয়ম না মানার কারণে হুমকিতে পড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের বায়ো বাবল ব্যবস্থা।

  • 8
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে