রোনালদোর গোল, পিছিয়ে পড়া জুভেন্টাসও পেয়েছে জয়

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২০; সময়: ১০:৫৪ am |
খবর > খেলা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : একেবারে গোলের মেলা বসিয়ে দিয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ইতালিয়ান সিরি আ হোক আর চ্যাম্পিয়নস লিগ, রোনালদোর পায়ে গোল আছেই। শনিবার তাঁর জোড়া গোলেই লিগে কালিয়ারির বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পেয়েছিল জুভেন্টাস। আজ চ্যাম্পিয়নস লিগেও পেয়েছেন গোল। ঘরের মাঠে ফেরেনৎভারোসের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয়ের ম্যাচে একটি গোল এসেছে রোনালদোর পা থেকে। অন্য গোলটি বদলি আলভারো মোরাতার।

এই মাসের প্রথম সপ্তাহে হাঙ্গেরির ক্লাব ফেরেনৎভারোসকে তাদের মাঠেই ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল জুভেন্টাস। অথচ আজ ঘরের মাঠে সেই দলের বিপক্ষে কষ্ট করে জিততে হয়েছে ইতালিয়ান ক্লাবটিকে। অবশ্য প্রথমে পিছিয়ে পড়েও শেষ মুহূর্তে, যোগ করা সময়ে মোরাতার গোলে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়া গেছে এই বা কম কী! এই জয়ে ৪ ম্যাচে ৯ পয়েন্টে গ্রুপ টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে জুভেন্টাস। এতে শেষ ষোলোতেও পৌঁছে গেছে তুরিনের ক্লাবটি।

পিছিয়ে পড়ে ২-১ গোলের জয়। খেলা না দেখে থাকলে শুধু স্কোর বোর্ড দেখে মনে হতে পারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই। আসলে তা নয়। পুরো ম্যাচেই দাপট ছিল রোনালদো, দিবালাদের। কিন্তু গোলের সুযোগ নষ্ট করা ছাড়াও আজ দুর্ভাগ্যও তাড়িয়ে বেড়িয়েছে তাঁদের। বেশ কয়েকটি বল সাইড পোস্টে লেগে ফিরে না এলে জয়টা তো আরামেও আসতে পারত।

প্রথমার্ধের ১৯ মিনিটে ফেরেনৎসভারোসের উজোনির গোলে জুভেন্টাসের পিছিয়ে পড়া। সেখান থেকে ম্যাচে ফিরতে লেগে যায় ১৬ মিনিট। ৩৫ মিনিটে রোনালদোর দুর্দান্ত এক গোলে সমতায় ফেরা। হুয়ান কুয়াদ্রাদোর পাস থেকে প্রথম স্পর্শে প্রতিপক্ষ দুজনের মাঝ দিয়ে বল বের করে বাঁ পায়ের শটে জালে বল জড়িয়েছেন রোনালদো। এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে দুই ম্যাচ খেলে এটিই তাঁর প্রথম গোল। আর এবারের মৌসুমে ৬ ম্যাচে ৯ গোল, সব মিলিয়ে ২০২০ সালে ৩৬ ম্যাচে ৩৫ বছর বয়সী পর্তুগিজের গোল হলো ৩৭টি!

দ্বিতীয়ার্ধের ৬৯ মিনিটে রোনালদোর নামের পাশে যোগ হতে পারত আরও একটি গোল। বদলি মোরাতার রক্ষণচেরা পাস গোলমুখে ভালো নিয়ন্ত্রণে নিলেও গোলমুখ খুলতে পারেননি পর্তুগিজ তারকা।

দ্বিতীয়ার্ধে ভাগ্য বিড়ম্বনার দৃশ্য। ৬০ মিনিটে ফেদেরিকো বার্নাদেস্কির বাঁ পায়ের ভলি গোলরক্ষকের হাত ছুঁয়ে সাইড পোস্টে লেগে ফিরে আসে। এছাড়া বদলি মোরাতার আরও একটি শট সাইড পোস্টে লেগে চলে যায় বাইরে। দুবার বল পোস্টে লেগে ফিরে আসা মানে ‘আজ আর হবে না’—এমনটাই হয়তো তখন মনে হচ্ছিল জুভেন্টাস ভক্তদের।

শেষ পর্যন্ত সেই ভুল প্রমাণ করেছেন মোরাতা। অতিরিক্ত যোগ করা সময়ে কুয়াদ্রাদোর গোলের ঠিকানা লেখা ক্রস থেকে হেডে গোলটি করেছেন মোরাতা। আগের ম্যাচে এই ফেরেনৎভারোসকের বিপক্ষেই জোড়া গোল করেছিলেন স্প্যানিশ এই ফরোয়ার্ড। সব মিলিয়ে এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে তাঁর গোল হলো ৫টি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে