অভিনব তিন নিয়ম নিয়ে আসছে বিগ ব্যাশ

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২০; সময়: ১০:৪২ am |

পদ্মাটাইমস ডেস্ক: বলা হয়ে থাকে যে অস্ট্রেলিয়ার টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগ বিগ ব্যাশ আইসিসির ক্রিকেট কমিটির চেয়েও অনেক সময় এগিয়ে থাকে উদ্ভাবনী চিন্তায়। আগামী ১০ ডিসেম্বর শুরু বিগ ব্যাশে তিনটি অভিনব নিয়ম চালু হতে যাচ্ছে। এই নিয়মগুলো সফল হলে ২০ ওভারের ক্রিকেটই বদলে যেতে পারে বলে ধারণা।

এবারের টুর্নামেন্ট থেকেই চালু হবে ‘পাওয়ার সার্জ’ ‘এক্স-ফ্যাক্টর’ ও ‘ব্যাশ বুস্ট’ নামে তিনটি নিয়ম। নতুন এই নিয়ম চালু করা হচ্ছে খেলাটিকে ৪০ ওভার জুড়ে আকর্ষণীয় করে তুলতে, উত্তেজনা ও রোমাঞ্চে আরও মুড়ে দিতে।

পাওয়ার সার্জ নিয়মানুয়ায়ী যে দল ব্যাট করবে, সেই দল নিজেদের ইনিংসকে আরও বেশি করে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবে। নতুন এই নিয়মে ৬ ওভারের পাওয়ার প্লে-কে দুই ভাগে ভাগ করে নিতে পারবে ব্যাটিং দল। আগের নিয়মে প্রথমেই নিতে হতো ৬ ওভার পাওয়ার প্লে। বদলে যাওয়া নিয়মে প্রথমে ৪ ওভার পাওয়ার প্লে নিয়ে বাকি ২ ওভার নেওয়া যাবে ১১ ওভারের পরে যেকোনও সময়।

ওয়ানডে ক্রিকেট আগে সুপার-সাব নেওয়ার একটা নিয়ম ছিল। সেই নিয়মটিকেই ‘এক্স-ফ্যাক্টর’ নামে ফিরিয়ে আনা হচ্ছে। এই নিয়মে প্রথম ইনিংসের ১০ ওভারের পরে দুই দলই ১২ বা ১৩ নম্বর ক্রিকেটারকে নামাতে পারবে। তবে শর্ত একটাই, এমন একজনকে নামাতে হবে যে তখনও ব্যাট করেনি বা এক ওভারের বেশি বোলিং করেনি।

বিগ ব্যাশে পয়েন্ট প্রাপ্তি ফুটবলের মতো। যে দল জেতে, পায় ৩ পয়েন্ট। নতুন নিয়মে কোনও দল ৪ পয়েন্টও পেতে পারে। আর এটিকেই বলা হচ্ছে বুস্ট পয়েন্ট। ব্যাশ বুস্টের জন্য থাকছে ১ পয়েন্ট। ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসের ১০ ওভারের শেষে দু’টি দলের রান তুলনা করে দেখা হবে। যে দল রানে এগিয়ে থাকবে, সেই দলই পাবে বাড়তি একটি ব্যাশ বুস্ট পয়েন্ট।

নতুন চালু করতে যাওয়ার উদ্দেশ্য হলো বিগ ব্যাশকে আরও জনপ্রিয় করে তোলা। বিগ ব্যাশ লিগের প্রধান অ্যালিস্টেয়ার ডবসন বলেন, ‘নতুন এই নিয়মের কারণে খেলাটা আরও বেশি পছন্দ করবেন সমর্থকেরা। এ ব্যাপারে আমরা আত্মবিশ্বাসী।’

বলাই বাহুল্য, নতুন তিন নিয়ম বিগ ব্যাশে সফল হলে অন্য টি-টোয়েন্টি লিগেও তা প্রয়োগ করা হতে পারে। বলার অপেক্ষা রাখে না যে সবচেয়ে বড় এবং আকর্ষণীয় আইপিএলই প্রথম সেই পথে হাঁটবে। সময়ের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটই এতে বদলে যাবে।

  • 3
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে