আইপিএলে দিল্লিকে উড়িয়ে চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই

প্রকাশিত: নভেম্বর ১১, ২০২০; সময়: ১১:৫১ am |
খবর > খেলা

পদ্মাটাইমস ডেস্ক : ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) ১৩তম আসরে শিরোপা জিতে নিয়েছে রোহিত শর্মার দল। দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দিল্লির সঙ্গে ফাইনাল ম্যাচটি হয়েছে পুরোপুরি একপেশে।

ম্যাচে আগে ব্যাট করে অধিনায়ক শ্রেয়াস আইয়ার ও উইকেটরক্ষক রিশাভ পান্তের ফিফটির পরেও ১৫৬ রানের বেশি করতে পারেনি দিল্লি। জবাবে মাত্র ৫ উইকেট হারিয়ে ৮ বল হাতে রেখেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় মুম্বাই ইন্ডিয়ানস। পেয়ে গেছে পঞ্চম শিরোপার স্বাদ।

আইপিএলে গত আসরে সর্বোচ্চ শিরোপা জেতার রেকর্ড গড়েছিল মুম্বাই। পুরো আসরে ভালো খেলে সেটিকে আরো একধাপ বাড়িয়ে নিল তারা। এই শিরোপা জয়ে ব্যাট হাতে বড় অবদান রেখেছেন কুইন্টন ডি কক, সূর্যকুমার যাদব ও ইশান কিশানরা। বল হাতে দুর্দান্ত ছিলেন জাসপ্রিত বুমরাহ, ট্রেন্ট বোল্টরা।

ফাইনালে দিল্লির করা ১৫৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে নিজেদের ইনিংসের তৃতীয় বলেই প্রতিপক্ষ স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে সোজা সীমানার বাইরে আছড়ে ফেলেন রোহিত। সেই প্রথম ওভারে হাঁকানো ছক্কাই ছিল মুম্বাইয়ের পুরো ব্যাটিংয়ের প্রতীকী চিত্র।

অধিনায়ক রোহিতের দেখাদেখি আক্রমণাত্মক খেলতে থাকেন বাঁহাতি ওপেনার ডি কক। উদ্বোধনী জুটিতে তারা মাত্র ২৫ বলে ৪৫ রান যোগ করেন। ইনিংসের পঞ্চম ওভারের প্রথম বলে আউট হওয়ার আগে ৩ চার ও ১ ছয়ের মারে ১২ বলে ২০ রান করেন কক।

তবে রোহিত দমে যাননি। তিনে নামা সূর্যকুমারকে নিয়ে চালিয়ে যান আক্রমণ। প্রথম পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেটে ৬১ রান করে মুম্বাই। এটি আইপিএলের ফাইনালে পাওয়ার প্লেতে করা সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। রোহিতের এক ভুল কলে ইনিংস বড় করতে পারেননি সূর্য। দ্বিতীয় উইকেট জুটিও যখন ঠিক ৪৫, তখন রানআউটে কাটা পড়েন।

পুরো আসরে প্রায় দেড়শ স্ট্রাইকরেটে ব্যাটিং করা সূর্য ফাইনালে খেলেছেন ২০ বলে ১৯ রানের স্বভাববিরুদ্ধ ইনিংস। তবে রোহিতের আক্রমণের কারণে সূর্যের মন্থর ব্যাটিংয়ের প্রভাব পড়েনি মুম্বাইয়ের ইনিংসে। ঝড়ো ব্যাটে ৩ চার ও ৪ ছয়ের মারে ৩৬ বলে ব্যক্তিগত পঞ্চাশ পূরণ করেন রোহিত।

চার নম্বরে নামা ইশান কিশানকে নিয়ে জয়ের বন্দরে প্রায় পৌঁছেই গিয়েছিলেন মুম্বাই অধিনায়ক। কিন্তু জয় থেকে মাত্র ২০ রান দূরে থাকতে তাকে সাজঘরের টিকিট ধরিয়ে দেন এনরিচ নর্টজে। ততক্ষণে জয় প্রায় নিশ্চিত মুম্বাইয়ের। আউট হওয়ার আগে ৫১ বলে ৬৮ রান করেন রোহিত।

মূলত ইনিংসের একদম প্রথম বল থেকেই দিল্লির ব্যাটিং দৈন্যতার শুরুটা হয়েছে। প্রথম ওভারের প্রথম বলেই দুই দলের পার্থক্যটা স্পষ্ট করে দেন মুম্বাইয়ের বাঁহাতি পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। ম্যাচের প্রথম ওভারের প্রথম বলেই তিনি সাজঘরে পাঠিয়ে দিয়েছেন দিল্লির অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার মার্কাস স্টয়নিসকে।

আইপিএল ইতিহাসে ফাইনাল ম্যাচের প্রথম ওভারের প্রথম বলে উইকেট পাওয়া এটিই প্রথম। বোল্ট শুধু আজকের ম্যাচেই প্রথম ওভারে উইকেট নেয়নি, চলতি আসরে দিল্লির বিপক্ষে আগের তিন ম্যাচেও প্রথম ওভারে আঘাত হেনেছিলেন।

এদিকে মুম্বাইয়ের পক্ষে বল হাতে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন ট্রেন্ট বোল্ট। সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর পার্পল ক্যাপের সন্ধানে থাকা বুমরাহ থাকেন উইকেটশূন্য। এছাড়া কাউল্টার নাইল ২ ও জয়ন্ত যাদব ১ উইকেট তুলে নেন।

  • 1
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • টিভিতে আজ
  • জেএফএ অনুর্ধ ১৪ মহিলা জাতীয় ফুটবল খেলায় চুড়ান্ত পর্বে মাগুরা সেমিতে
  • নওগাঁর মহাদেবপুরে ক্রিকেট খেলার উদ্বোধন
  • তোমার জন্মের আগ থেকে সেঞ্চুরি করি: আফগান পেসারকে আফ্রিদি
  • টিভিতে আজ
  • রকবল ও ৪র্থ জাতীয় নারী থ্রোবল প্রতিযোগিতায় রাজশাহীর ৩য় স্থান অর্জন
  • জেএফএ অনুর্ধ-১৪ মহিলা জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপের চুড়ান্ত পর্বের খেলার ফল
  • বাগাতিপাাড়ার ম্যারাডোনার মৃত্যুতে ভাত খাওয়া বন্ধ রেখে শোক পালন ভক্তের
  • ওয়ার্নারকে নিয়ে দুশ্চিতায় অস্ট্রেলিয়া
  • ম্যারাডোনার ব্যক্তিগত চিকিৎসকের বাড়ি ও ক্লিনিকে তল্লাশি
  • বার্সার জয়, ম্যারাডোনাকে গোল উৎসর্গ মেসির
  • পাকিস্তানের অধিনায়ক এমএস ধোনি!
  • টিভিতে আজ
  • রাজশাহী কাজীহাটা প্রিমিয়ার লীগের পুরস্কার বিতরণ করেন মেয়র লিটন
  • রাজশাহীতে জেএফএ অনুর্ধ-১৪ মহিলা জাতীয় ফুটবল খেলার চুড়ান্ত পর্বের ফল
  • উপরে