কর্মস্থলে ফেরা হলো না শাহীন আলমের

প্রকাশিত: মে ৮, ২০২২; সময়: ১২:৪৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগমারা : ঈদের ছুটি শেষে কর্মস্থলে ফেরা হলো না শাহীন আলম (২৭) এর। নিহত শাহীন আলম নিপ্রো ফার্মাসিটিক্যাল কোম্পানীতে ২ বছর ধরে চাকরী করছেন। পবিত্র ঈদ উল ফিতরের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার পাইকপাড়ায় যান পিতা-মাতার সাথে ঈদ করতে। সুন্দর ভাবে বাড়ি পৌঁছালেও কর্মস্থলে ফেরা হলোনা। শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে ঢাকার মোহাম্মদপুরে কর্মস্থলে যাওয়ার পথে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনা শিকার হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যান শাহীন আলম।

নিহত শাহীন আলমের পিতা কলিমুদ্দিন বলেন, চাকরীতে যোগদানের জন্য মোটরসাইকেল নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে বের হয়। সবার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে এক মটরসাইকেলে দুই জন যাচ্ছিল। দুপুরে খবর আসে শাহীন আলমের মোটরসাইকেলের পিছনে দ্রুত গতির একটি বাস ধাক্কা দেয়। এ সময় মোটর সাইকেল থেকে ছিটকে পড়লে পায়ের উপর দিয়ে বাস চলে যায়। এ সময় ঘটনাস্থলে মৃত্যু হয় শাহীন আলমের।

জানাগেছে বছর দুয়েক আগে রাজশাহী কলেজ থেকে সমাজকর্মে অনার্স-মাস্টার্স শেষ করে। লেখাপড়া শেষ করেই ঔষুধ কোম্পানীতে চাকুরী নেয়। চাকরীর পর থেকে ঢাকার মোহাম্মদপুর এলাকায় থাকতেন নিহত শাহীন আলম।

বিয়েও করেছেন শাহীন আলম। তবে তাদের এখনও কোন সন্তান নেই। স্ত্রী রহিঙ্গা ক্যাম্পে একটি বেসরকারী সংস্থায় নার্সের চাকরী করছেন বলে জানা গেছে। নিহত শাহীন আলম তার পিতার একমাত্র ছেলে। সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের খবরে শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবার সহ গোটা এলাকায়। কান্না থামছেনা পিতা-মাতা সহ প্রতিবেশিদের।

দুর্ঘটনার পর থেকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে একটি হাসপাতালে নিয়ে রাখা হয় নিহত শাহীন আলমকে। রহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে তার স্ত্রী আসলেই নাকি নিহত শাহীন আলমের লাশ গ্রামের বাড়িতে নেয়া হবে বলে জানা গেছে। অন্যদিকে শাহীনের মোটর সাইকেলে থাকা অপরজন সুস্থ আছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে