রাজশাহীতে ১০ বছরের কারাদণ্ড এড়াতে ২০ বছর আত্মগোপনে

প্রকাশিত: মে ৭, ২০২২; সময়: ৩:৩৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : আদালতের দেওয়া ১০ বছরের কারাদণ্ড এড়াতে ২০ বছর ধরে আত্মগোপনে ছিলেন এক ব্যক্তি। স্থায়ী আবাস গড়েছিলেন ভারতে। তবে শেষ রক্ষা হলো না। অবশেষে তাঁকে পুলিশের কাছে ধরা পড়তেই হলো।

রাজশাহীর তানোর থানা পুলিশ শুক্রবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঘুঘুডিমা গ্রাম থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।

এই ব্যক্তির নাম আবদুস সাত্তার। এখন বয়স আনুমানিক ৬০। তাঁর বাবার নাম মো. গরিবুল্লাহ। তানোর উপজেলার কিসমত বিল্লি গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন তিনি। এক সময় ডাকাত হিসেবে কুখ্যাতি ছিল সাত্তারের। ১৯৯৯ সালের ৯ মার্চ এক ডাকাতির ঘটনায় তার বিরুদ্ধে মামলা হয়। কিন্তু মামলা হওয়ার পর থেকেই ভারতের মুর্শিদাবাদে চলে যান সাত্তার।

রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম জানান, ডাকাতির অভিযোগ অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় আদালত আসামির অনুপস্থিতিতেই তাকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড এবং এক হাজার টাকা জরিমানা করেন। জরিমানার অর্থ অনাদায়ে আরও তিন মাসের সশ্রম কারাদণ্ড। কিন্তু আসামিকে আর পাওয়া যায়নি। তিনি ভারতে গিয়ে স্থায়ী হন।

তবে কয়েকদিন আগে তিনি চাঁপাইনবাবগঞ্জে মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। গোপন তথ্যের ভিত্তিতে তানোর থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে। শনিবার আসামিকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপে