রাজশাহীতে পদ্মার তীর সংরক্ষণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৩, ২০২২; সময়: ৩:৫২ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় পাকুড়িয়া ইউনিয়নে পদ্মা নদীর তীর সংরক্ষণ প্যাকেজ কাজের অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে রাজশাহীর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। সোমবার এলাকাবাসী লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পদ্মা নদীর বাম তীরের স্থাপনাসহ ভাঙন থেকে রক্ষার জন্য ৭২২ কোটি ২৪ লাখ টাকার প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়। উপজেলার মীরগঞ্জ ও গোকুলপুর এবং চারঘাট উপজেলার ইউসুফপুর ও রাওথা এলাকায় ৪.৩ কিলোমিটার নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ, উপজেলার আলাইপুর এলাকায় এক কিলোমিটার বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণ, ৮০০ মিটার নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ পুনর্বাসন, আলাইপুর থেকে চকরাজাপুর পর্যন্ত ১২.১ কিলোমিটার পদ্মা নদীর ড্রেজিং কাজ শুরু করা হয়েছে।

এ প্রকল্পের ৫, ৬, ৭, ৮, ৯ ও ১০ নম্বর প্যাকেজের কাজে চরম অনিয়ম হচ্ছে বলে রাজশাহীর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, জিওব্যাগ ভরাট করার ক্ষেত্রে মোটা বালু ব্যবহার করার কথা রয়েছে। কিন্তু নিম্নমানের পচা ধুলাযুক্ত বালু দিয়ে জিওব্যাগ ভরাট করা হচ্ছে। এছাড়া নদীর পানিতে যে পরিমাণ বস্তা ডাম্পিং করার কথা সেখানেও অনিয়ম হচ্ছে। ফলে পদ্মা নদী রক্ষা প্রকল্পের উন্নয়ন কাজ টেকসই ও দীর্ঘস্থায়ী না হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

পদ্মার তীরবর্তী গোকুলপুর গ্রামের রফিকুল ইসলাম ও নাপিতপাড়া গ্রামের ভানু বেগম বলেন, ভাঙনের কবলে পড়ে কয়েক বছরে পদ্মা নদীতে বিলীন হয়েছে হাজার হাজার বিঘা ফসলি জমি, বসতভিটা, রাস্তাঘাট ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। এছাড়া অনেকেই ভাঙনে সর্বস্ব হারিয়ে সর্বহারা হয়েছেন। ভাঙনের কবল থেকে রক্ষা করতে বাঁধ নির্মাণকাজ শুরু হয়েছে। ফলে আমরা এখন স্বস্তিতে রয়েছি। কিন্তু অনিয়মভাবে বাঁধের কাজ করলে টেকসই হবে না। বাঁধ টেকসই করতে স্থানীয় মানুষ অভিযোগ করেছেন।

প্রকল্পের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার তানভীর আহম্মেদ বলেন, পদ্মা নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ, বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ নির্মাণ, নদীতীর প্রতিরক্ষা কাজ পুনর্বাসন, ড্রেজিং ভালো হচ্ছে। কিন্তু কিছু মানুষ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সুনাম ক্ষণ্ন করার জন্য বিভিন্ন অভিযোগ করছেন।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম শেখ বলেন, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে