রাবিতে শাবিপ্রবি উপাচার্য ফরিদের পদত্যাগের দাবিতে ফের অবস্থান কর্মসূচি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৪, ২০২২; সময়: ৩:৩১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাবি : সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে শিক্ষার্থীদের অনশনের সাথে সংহতি জানিয়ে চতুর্থ দিন অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সোমবার (২৪ জানুয়ারি) বেলা ১১ বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিফলক চত্বরে আয়োজিত সংহতিমূলক এক অবস্থান কর্মসূচি থেকে এ দাবি জানানো হয়।

এ সময় নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মহেদী হাসান মুন্না বলেন, একটা স্বৈরাচারী কাঠামোর মধ্যে দিয়ে বাংলাদেশ এখন অতিবাহিত হচ্ছে। এই কাঠামো যত দিন না পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে উচ্ছেদ করা না যাচ্ছে ততদিন পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী সবাই অমেরুদন্ডী প্রাণি হিসাবে বেঁচে থাকবে। জীবন্ত লাশ হিসাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বেঁচে আছে। তাদের ন্যায্য অধিকার তারা কখনোই পায় না। কোন ন্যায্য আন্দেলন সংগ্রামে আসলে তাদের বাড়িতে হুমকি দেয়া হয়। এই হুমকি দাতার প্রধান হচ্ছে রাষ্ট্র এবং সরকার। স্বৈরাচারী কাঠামোর মধ্যে আমাদের আবদ্ধ করে রাখা হয়েছে। কেও কিছু বললে তাকে গুম করা হয়, হত্যা করা হয়, গ্রেফতার করা হয়। এই প্রথার বিরুদ্ধে আমাদের ছাত্র সমাজকে দাঁড়াতে হবে।

ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী সাকলাইন গৌরব বলেন, সমস্ত বাংলাদেশে যে স্বৈরাচারী কাঠামো রয়েছে তা ভাংতে হবে এবং এই কাঠামো ভাঙ্গার যে প্রসেস সেটা এই স্বৈরাচারী ভিসিকে পদত্যাগ করার মাধ্যমে সূচনা করা হবে। ফলিত রসায়ন ও রসায়ন প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী রাকিবৃুল ইসলাম রাকিব বলেন, এক সপ্তাহ বা অধিক সময় ধরে শিক্ষার্থীদের যে ন্যায্য আন্দোলন তা ধীরে ধীরে সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ছে।

প্রায় একশ ঘন্টা পার হয়ে যাচ্ছে তবুও সরকারের পক্ষ থেকে কোন নোটিশ জারি হচ্ছে না। ২৮ জন শিক্ষার্থী ধীরে ধীরে মৃত্যুর মুখে ধাবিত হচ্ছে। একজন শিক্ষার্থীকে আইসিইউতে নেয়া হয়েছে। যত দ্রুত সম্ভব এই ভিসিকে পদত্যাগ করতে হবে। শিক্ষার্থীদের সকল দাবি মেনে নিতে হবে। সেই সাথে যে মামলা দেয়া হয়েছে তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করে নিতে হবে। বিকাল চার টার মধ্যে যদি ভিসি পদত্যাগ না করে তাহলে আমারা রাবি শিক্ষার্থীরা কঠোর আন্দোলনে যাব।

লোক প্রশাসন বিভাগের শিক্ষার্থী নাইমুল ইসলাম নাঈম বলেন, শিক্ষার্থীদের এত আন্দলনের পরেও ভিসি কিভাবে তার পদে বহাল থাকে। কোন অদৃশ্য শক্তির বলে তিনি ক্ষমতায় থাকেন। যারা তাকে দ্বায়িত্ব অর্পণ করেছিলেন তারা এত আন্দোলন সংগ্রামের পরেও তারা কি কারণে তাকে সেই চেয়ারে বসায় রেখেছেন তা আমাদের জানতে হবে। আমাদের এই শক্তির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে এই শক্তির অবসান ঘটাতে হবে।

ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মহব্বত হোসেন মিলনের সঞ্চালনায় এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন ছাত্র অধিকার পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক আমানুল্লাহ আমান, রাকসু আন্দোলন মঞ্চের আহ্বায়ক আব্দুল মজিদ অন্তর, সহ প্রমুখ।প্রসঙ্গত, শাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ‌ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে আমরণ অনশন কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন শিক্ষার্থীরা। এই অনশনের প্রতি সংহতি জানিয়ে রাবিতে চতুর্থ দিনের মত এই অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে