রাজশাহীর পবা হরিয়ান ইউপিতে নির্বাচনের দাবি

প্রকাশিত: জানুয়ারি ২২, ২০২২; সময়: ৭:৫৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর পবার হরিয়ান ইউনিয়নে দীর্ঘদিন থেকে নির্বাচন না হওয়ায় ক্ষুব্ধ ভোটাররা। নির্বাচনের দাবিতে ফুসে উঠছে জনগণ। তারা বিভিন্ন সভা-সমাবেশ করছেন। গতকাল শনিবার ইউনিয়নের এমআরকে উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নির্বাচনের দাবিতে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল্লাহর সভাপতিত্বে ও হরিয়ান ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক সাইম হাসান জুয়েলের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন পবা উপজেলা আওয়ামী লীগ যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হাসান আহমেদ জুয়েল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক অধ্যাপক নূর হোসেন তালুকদার, হরিয়ান ইউনিয়ন ১ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি লীলবর রহামন, ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব সাইদ আলী, ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ইসলাম আলী, হরিয়ান ইউনিয়ন কৃষকলীগ সভাপতি মোস্তাক আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন, পবা উপজেলা যুবলীগ সহসভাপতি বাবলু তালুকদার, সাংগঠনিক সম্পাদক মিলন আলী, হরিয়ান ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি এমদাদুল হক, দপ্তর সম্পাদক সজীব উদ্দিন মৃধা, ইউনিয়ন ছাত্রলীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম তন্ময়, ছাত্রলীগ সাবেক সভাপতি মিনজারুল ইসলাম মৃধা পিয়াল।

আরো বক্তব্য রাখেন ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক আবু সাইদ, ৫ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, ২নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সভাপতি সাজাহান আলী, ৭ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি বিদ্যুৎ। উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা হবিবুর রহমান, আব্দুর রাজ্জাক, আলমগীর হোসেন, আয়েন উদ্দন প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, হরিয়ান ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মফিদুল ইসলাম বাচ্চু সীমানা জটিলতার অজুহাতে নির্বাচন বন্ধ করে রেখেছেন। বাচ্চু মূলত বিএনপি’র প্রার্থী হিসেবে প্রায় ১১ বছর আগে হরিয়ান ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি হাইব্রিড আওয়ামী লীগ। তারা বলেন, একে তো বিএনপির চেয়ারম্যান ও নির্বাচন না থাকায় এলাকার কোন উন্নয়ন হয়নি। এমনকি নির্বাচন না থাকায় এই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সংগঠন অত্যন্ত নাজুক অবস্থায় রয়েছে।

তারা আরো বলেন, ২০০৫ সালে বর্তমান চেয়ারম্যান মফিদুল ইসলাম বাচ্চুর নেতৃত্বে পুলিশ পাহারায় হরিয়ান চিনিকলে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি মুছে ফেলা হয়। এমনকি ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও অনেক কেন্দ্রে তার ইশারাই বোমা বিস্ফোরণ হয়েছে বলে তারা জানান। হরিয়ান ইউনিয়নের ৮ ও ৯ ওয়ার্ড ভাঙ্গার ফলে সীমানা জটিলতার অজুহাত এনেছে। কিন্তু এখনো ও ওয়ার্ডে ভাতা, ত্রাণসহ সকল সরকারি অনুদান চলমান আছে। এসব অনুদান সদস্য ও চেয়ারম্যান আত্মসাৎ করছে বলে তারা জানান। এছাড়াও সীমানা জটিলতা থাকলে সংসদ ও উপজেলা নির্বাচন কেমন করে হয়-প্রশ্ন তোলেন তারা। তারা অবিলম্বে এই ইউনিয়নে নির্বাচন দিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে