অনন্য মাত্রায় রাজশাহীর পদ্মাপাড়

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৪, ২০২১; সময়: ৭:০৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটনের উদ্যোগে মহানগরীর পদ্মাপাড়ের বিনোদন কেন্দ্রকে হিসেবে ঢেলে সাজানো হচ্ছে। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। এবার রাজশাহীর পদ্মাপাড়ের বিনোদনকেন্দ্রে যোগ হলো বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার।

শুক্রবার বিকেলে লালন শাহ পার্ক ও মুক্তমঞ্চ সংলগ্ন চরে আনুষ্ঠানিকভাবে ২টি বিচ বাইক ও ১০টি বিচ চেয়ারের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সিটি কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপনায় বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার পরিচালনা করা হবে। এক রাউন্ড বিচ বাইক ব্যবহারে প্রতিজন ৫০টাকা এবং বিচ চেয়ার ব্যবহারে ঘন্টায় ২০ টাকা প্রদান করতে হবে। আগামীতেও আরো বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে। সিটি কর্পোরেশনের মুনাফা নয়, বরং নগরবাসীর বিনোদনের জন্য যুক্ত করা হলো বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীকে পর্যটন নগরী গড়ে তুলতে পদ্মাপাড়কে ঘিরে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার চালু পদ্মাপাড়ের বিনোদনের একটি অনন্য মাত্রা যোগ হলো। এটি সূচনা মাত্র।

পদ্মাপাড়ে বিনোদন কেন্দ্রের উন্নয়নে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ চলমান আছে। পদ্মায় জেগে ওঠা ৮ কিলোমিটার র্দৈঘ্য ও ৫০০ মিটার প্রশস্ত চরে রিভার সিটি গড়ে তোলার পরিকল্পনা করা হয়েছে। রিভার সিটির ডিজাইন প্রণয়ণ করা হয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অনুমোদন দিলে এর কাজ শুরু করা হবে।

সিটি মেয়র বলেন, বিচ বাইক ও বিচ চেয়ার চালু সিটি কর্পোরেশনের মুনাফা লাভের কোন উদ্দেশ নেই। নগরবাসীসহ এখানে ঘুরতে আসা পর্যটকরা যাতে বিনোদন উপভোগ করতে পারেন সেই জন্য এটি চালু করা হলো। আমাদের দেখে কোন তরুণ-তরুণী যদি বেসরকারি উদ্যোগে একাজে এগিয়ে আসেন, তাহলে তাদের সাধুবাদ জানাবো। এক্ষেত্রে কর্মসংস্থানেরও সুযোগ সৃষ্টি হবে।

মেয়র আরো বলেন, পদ্মাপাড়কে এমনভাবে তৈরি করা হবে যাতে, চট্টগ্রাম, কক্সবাজারের ন্যায় রাজশাহীর পদ্মাপাড়ে ঘুরতে আসেন দেশি-বিদেশী পর্যটকরা। সেই লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। আগামীতে নদীতে স্পিড বোর্ড চালুসহ বহুমাত্রিক বিনোদন ব্যবস্থার পরিকল্পনা রয়েছে। এসব কাজে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করছি।

অনুষ্ঠানের বক্তব্য দেন সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র-১ ও ১২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সরিফুল ইসলাম বাবু, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক উপ-কমিটির অন্যতম সদস্য ও রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ডা. আনিকা ফারিহা জামান অর্ণা। সভাপতিত্ব করেন রাসিকের ৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাসেল জামান। স্বাগত বক্তব্য দেন সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) আহমেদ আল মঈন পরাগ।

এ সময় রাসিকের প্যানেল মেয়র-২ ও ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রজব আলী, প্যানেল মেয়র-৩ ও ১নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর তাহেরা খাতুন, ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহুল আমিন, ১৩নং ওয়ার্ড আব্দুল মোমিন, ১৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন, ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুস সোবহান, ১৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর বেলাল আহম্মেদ, ১৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম।

এছাড়াও ১৯নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তৌহিদুল হক সুমন, ২০নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রবিউল ইসলাম, ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল হামিদ সরকার, ২৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তরিকুল আলম পল্টু, ২নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর আয়েশা খাতুন, ৪নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর শিরিন আরা খাতুন, ৩নং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর মুসলিমা বেগম বেলী, প্রকল্পের ইঞ্জিনিয়ারিং এডভাইজার প্রকৌশলী আশরাফুল হক, রাসিকের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী নুর ইসলাম তুষার, সহকারী প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) শাহেদুজ্জামান ও অন্যান্য প্রকৌশলীবৃন্দ।

এ সময় ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাখওয়াত হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা কাইয়ুম, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ববিন সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোস্তাফিজ মিশু।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে