গোদাগাড়ীতে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের মেলা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১; সময়: ৫:২৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় গোদাগাড়ী উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর ও ভেটেরিনারি হাসপাতাল ক্যাম্পাসে ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগল উন্নয়ন ও সম্প্রসারন প্রকল্পের আওতায় এই মেলা অনুষ্ঠিত হয়।

গোদাগাড়ী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা: সুব্রত কুমার সরকারের সভাপতিত্বে মেলা/ এক্সিভিশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. জুলফিকার মোঃ আখতার হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গোদাগাড়ী উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা বরুন কুমার মন্ডল, এবং ভেটেরিনারি সার্জন ডাঃ সম্পা রানী দাস।

উল্লেখ্য যে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল সম্প্রসারন করার উদ্দেশ্যে এই প্রকল্পের আওতায় গোদাগাড়ী উপজেলার দশ জন ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালনকারীকে সিজিএফ ( কন্ট্রাক্ট গ্রোয়িং ফারমার) হিসেবে নির্বাচন করা হয়। প্রকল্পের সহায়তায় তাদেরকে আধুনিক পদ্ধতিতে ছাগল পালনের জন্য প্লাস্টিকের মাচাসহ একটি আধুনিক ছাগল পালনের সেড নির্মাণ করে দেওয়া হয়।

ছাগলের বাচ্চাকে খাওয়ানোর জন্য দুধের বিকল্প হিসেবে নির্বাচিত খামারী এবং তার পার্শ্ববর্তী ছাগল পালনকরী খামারীদের মিল্ক রিফ্রেসার প্রদান করা হয়। এছাড়া নির্বাচিত খামারীদের এবং তাদের পার্শ্ববর্তী ছাগল পালনাকারী খামারীদের মাঝে প্রকল্পের আর্থিক সহায়তায় সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ছাগলের টিকা এবং বিভিন্ন ধরনের ঔষধ বিতরন করা হয়।

খাঁটি ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল সম্প্রসারনের জন্য উপজেলায় দ্ইু জন বাক কীপার ( পাঁঠাপালনকারী ) খামারীকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে আধুনিক সুবিধা সম্বলিত একটি প্লাস্টিক মাচার ছাগলের সেড নির্মাণ করে দেওয়া হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে বিনামূল্যে ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের দুই টি করে পাঁঠা বিতরণ করা হয়েছে এবং পাঁঠার জন্য প্রয়োজনীয় খাবার সরবরাহ করা হয়েছে।

এছাড়া তাদেরকে বিনামূল্যে ছাগলের টিকিা ও কৃমিনাশক ঔষধসহ বিভিন্ন প্রকার ঔষধ সরবরাহ করা হয়েছে। ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের এক্সিভিশন/ মেলাতে অংশগ্রহনকারী খামারীদের মধ্য হতে একজন ছাগী পালনকারী এবং একজন পাঁঠা পালনকারীকে একটি করে এলইডি টিভি পুুরস্কার হিসেবে প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. জুলফিকার মোঃ আকতার হোসেন বলেন, এই প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়িত হলে দেশে খাঁটি ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের বিপ্লব ঘটবে। সভাপতি ডাঃ সুব্রত কুমার সরকার, উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার, গোদাগাড়ী, রাজশাহী মহোদয় তাঁর বক্তব্যে বলেন , বর্তমানে বংলাদেশ মাংসে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে।

ছাগল উৎপাদনে বাংলাদেশ বিশ্বে চতুর্থ স্থান অর্জন করেছে। ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগলের মাংস অত্যন্ত সুস্বাদু হওয়ায় এর ব্যাপক জনপ্রিয়তা রয়েছে। তাছাড়া এই জাতের ছাগল পালন অত্যন্ত লাভজনক হওয়ায় দিন দিন এর জনপ্রিয়তা বাড়ছে। এই প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে অত্র এলাকার জনগন ব্ল্যাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালন করতে আরো আগ্রহী হবে এবং এই জাত ব্যাপকভাবে সম্প্রসারন হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

  • 2
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে