রাজশাহীর কোভিড ইউনিটে আরও ১৮ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: জুলাই ৫, ২০২১; সময়: ১০:২৪ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের কোভিড ইউনিটে গত ২৪ ঘন্টায় আরও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল ৬টা থেকে সোমবার সকাল ৬টার মধ্যে তারা মারা যান। এদের মধ্যে পাঁচজনের করোনা পজেটিভ ছিল। বাকি ১২ মারা যান উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায়।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, নতুন মারা যাওয়াদের আটজনই রাজশাহীর। বাকিদের মধ্যে চাঁপাইনবাগঞ্জের একজন, নাটোরের তিনজন, নওগাঁর চারজন, পাবনার একজন ও কুষ্টিয়ার একজন।

মৃতদের মধ্যে ১২ জন পুরুষ ও ৬ জন নারী। এদের মধ্যে সাতজনের বয়স ৬১ বছরের উপরে। বাকিদের মধ্যে ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তিনজন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সের দুইজন এবং ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সের ছয়জন। এ নিয়ে চলতি মাসের পাঁচ দিনের মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ৮২ জনে। এদের মধ্যে করোনা পজেটিভ ছিল ২৮ জনের।

শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৬৯ জন। একই সময় সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪৮ জন। সোমবার সকাল পর্যন্ত ৪০৫ বেডের বিপরীতে চিকিৎসাধীন আছেন ৪৯৫ জন। বাকি ৯০ জনকে বারান্দা ও মেঝেতে অতিরিক্ত বেডের ব্যবস্থা করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আইউসিইউতে চিকিৎসাধীন ২০ জন।

পরিচালক বলেন, রোগির চাপ সামলাতে ৪ নং ওয়ার্ডকে করোনা ইউনিটে যুক্ত হয়েছে। এখনো ৫০টি অক্সিজেন লাইন বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। আজ থেকে সেখানে রোগী রাখা যাবে। এ নিয়ে করোনা ইউনিটের ১৪টি ওয়ার্ড বেডের সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৫৫টিতে।

এদিকে, রাজশাহীতে এক দিনের ব্যবধানে আবারো সামান্য বেড়েছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের হার। রোববার দুইটি ল্যাবে রাজশাহী জেলার ৬১৬ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ২১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে। যা আগের দিনের চেয়ে দশমিক ২৬ শতাংশ বেড়ে করোনা শনাক্তের হার ৩৪ দশমিক ০৯ শতাংশ। যা আগের দিন শনিবার ছিল ৩৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

এর আগে গত শুক্রবার ছিল ২৬ দশমিক ৭৪ শতাংশ, বৃহস্পতিবার ৪২ দশমিক ৪০ শতাংশ, বুধবার ছিল ৩৯ দশমিক ৯০ শতাংশ, মঙ্গলবার ৩২ দশমিক ০৬ শতাংশ এবং গত সোমবার ছিল ৩৬ দশমিক ৯২ শতাংশ।

হাসপাতাল পরিচালক জানান, এ দিন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল পৃথক দুইটি ল্যাবে দুই জেলার ৬৫৪ জনের নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। এর মধ্যে করোনা পজেটিভ এসেছে ২১৮ জনের। রাজশাহী জেলা ছাড়াও চাঁপাইনবাগঞ্জের ৩৮ জনের নমুনার মধ্যে ৮টি পজেটিভ এসেছে।

ঈদের পর থেকে রাজশাহীতে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকলে গত ১১ জুন সিটি করপোরেশন এলাকায় এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করে স্থানীয় প্রশাসন। পরে সেটি দুই দফা বাড়িয়ে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত করা হয়। এর পর এক জুলাই থেকে নতুন করে সরকারি ঘোষিত সাতদিনের কঠোর লকডাউন চলছে।

  • 1.4K
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে