রাজশাহীতে সাংবাদিক পরিচয়ে এক মাদকাসক্ত প্রতারক

প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২১; সময়: ১১:৩৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : মাদক সেবনের অর্থ সংগ্রহ করতে গণ্যমান্য ব্যক্তিদের ব্ল্যাক মেইল করার অভিযোগ উঠেছে কথিত সাংবাদিক হাসানুজ্জামানের বিরুদ্ধে। রাজশাহীর বিভিন্ন সরকারী দপ্তরে তথ্য অধিকার আইনে আবেদন করে তথ্য নিয়ে মিথ্যা ও মনগড়া ভুয়া সংবাদ পরিবেশন করে ব্ল্যাক মেইল করে অর্থ আদায়ের অভিযোগ করছেন সরকারি দপ্তরের কয়েকজন কর্মকর্তা ।

রাজশাহী সড়ক ও জনপদ, রেলওয়ে, গণপূর্ত, ভূমি রেজিস্ট্রার অফিস, পানি উন্নয়ন বোর্ড, বিআরটিএ, রাসিকসহ সরকারী বেসরকারী দপ্তরে তথ্য চেয়ে ভয় দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে হাসানুজ্জামান ও তার সঙ্গীরা। মূলত মাদক সেবন (ফেন্সিডিল খাওয়ার) অর্থ সংগ্রহ করতেই এই কাজগুলো করছেন তিনি। সংবাদে বস্তুনিষ্ঠ কোন সঠিক তথ্য না দিয়ে ভিত্তিহীন তথ্য দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করায় তার কাজ।

জানা যায়, বাগমারা এলাকায় এই কথিত সাংবাদিককে হেরোইনখোর হিসাবে সবাই চেনেন। রাজশাহী নগরীতে এসে জড়িয়ে যায় ফেনসিডিল সেবনে। মাদক সেবনের অর্থ সংগ্রহের হাতিয়ার হিসাবে একটি পত্রিকার নাম ব্যবহারপূর্বক তথ্য অধিকার আইনকে হাতিয়ার করে তথ্য চেয়ে ভয় দেখানোই যার কাজ। এমন অভিযোগ করেছেন সরকারী দপ্তরের কয়েকজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।

মূল ঘটনাকে অন্যভাবে লিখে ভয় দেখিয়ে অর্থ দাবি করেন তিনি। সম্প্রতি কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের তথ্য চেয়ে আবেদন করে তা আবার তুলে নেয় টাকার বিনিময়ে। আবার কয়েকদিন পরে সেখানে তথ্য চায় সে। যখন মাদকের নেশা উঠে তখন হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলে সে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান কর্মরত অফিসারদের বিরুদ্ধে স্ট্যাটাস দিয়ে পরে অর্থ নিয়ে তা তুলে ফেলার অভিযোগ এক ঠিকাদারের।

নাম না প্রকাশ অনেচ্ছুক একজন প্রকৌশলী জানায়, আমি তার বিরুদ্ধে একটি জিডি করে রেখেছি। এদিকে সংবাদ প্রকাশের নামে পবা উপজেলা রেজিস্ট্রার অফিসে ভুয়া ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করে সে। এ বিষয়ে কথা বলতে তাকে ফোন দিলে সে ফোন রিসিভ করেনি।

  • 182
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে