মৃত্যু থামছেই না রাজশাহীর করোনা ইউনিটে

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২১; সময়: ৯:৪০ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সকাল ৬টা থেকে রোববার সকাল ৬টার মধ্যে বিভিন্ন সময় মারা যাওয়াদের মধ্যে একজনের করোনা পজেটিভ ছিল। বাকিরা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান, নতুন মারা যাওয়াদের মধ্যে রাজশাহীর চারজন, চাঁপাইনবাগঞ্জের দুইজন ও নাটোরের চার। এদের মধ্যে সাতজন পুরুষ ও তিনজন নারী।

মারা যাওয়া ১০ জনের মধ্যে চারজনের বয়স ৬১ বছরের উপরে। এদের মধ্যে তিনজন পুরুষ, একজন মহিলা। বাকিদের মধ্যে ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে দুইজন নারী, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে একজন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সের তিনজন পুরুষ।

এ নিয়ে চলতি মাসে (১ জুন সকাল ৬টা থেকে ২৭ জুন সকাল ৬টা পর্যন্ত) এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মারা গেলেন ৩০১ জন। এর আগে সবচেয়ে বেশী মারা যায় গত ২৪ জুন ১৮ জন এবং সবচেয়ে কম গত ১২ জুন চারজন।

পরিচালক বলেন, এ হাসপাতালে কোভিড ইউনিটে মৃত্যুহার অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে ২৯ জন, ফেব্রুয়ারিতে ১৭, মার্চে ৩১, এপ্রিলে ৭৯ ও মে মাসে ১২৪ জনের মৃত্যু হয়। আর গত বছরে সর্বোচ্চ মৃত্যু ছিল আগস্ট মাসে ২৬ জন।

শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫৫ জন। এর মধ্যে রাজশাহীর ৩৭ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের চার, নাটোরের পাঁচ, নওগাঁর দুই. পাবনার ছয় ও দিনাজপুরের একজন। সুস্থ্য হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৫৫ জন।

রোববার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৩৫৭ বেডের বিপরীতে করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন রোগী আছেন ৪৩৪ জন। যা আগের দিন ছিল ৪৩১। অতিরিক্ত রোগিদের মেঝে ও বারান্দায় রেখে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

কোভিড ইউনিটে চিকিৎসাধীন রোগিদের মধ্যে রাজশাহীর ২৯১ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪৪ জন, নাটোরের ৩৭ জন, নওগাঁর ৩৫ জন, পাবনার ২২ জন, কুষ্টিয়ার তিনজন, দিনাজপুরের একজন ও ঢাকার একজন। আইউসিইউতে ভর্তি আছেন ২০ জন।

শামীম ইয়াজদানী বলেন, রোগিদের চাপ সামলাতে আরেকটি করোনা ওয়ার্ড বাড়ানো হয়েছে। ৪৮ বেডের ১৪ নাম্বার সাধারণ ওয়ার্ডে অক্সিজেন লাইন বসিয়ে করোনা ওয়ার্ডে রুপান্তর করা হয়েছে। আজ থেকেই সেখানে করোনা রোগি রাখা হবে।

  • 744
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে