তানোরে যুবলীগ নেতা ও মেম্বারের কান্ড!

প্রকাশিত: জুন ২৫, ২০২১; সময়: ১০:০২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, তানোর : রাজশাহীর তানোর উপজেলার পাঁচন্দর ইউপির ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের এক মৃত ব্যক্তির বিধবা স্ত্রীকে বিধবা ভাতার কার্ড করে দেয়ার কথা বলে ২ হাজার টাকা নেয়ার দীর্ঘদিন পর ভিজিডি কার্ড করে দিয়েছেন পাঁচন্দর ইউপি ৮ নং ওয়ার্ড সদস্য মুন্জুর রহমান ও ওয়ার্ড যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মিলন আলী।

এঘটনায় গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। অসহায় ও দরিদ্র পরিবারগুলোর দারিদ্রতা ও সহজ-সরলতার সুযোগে এক শ্রেনীর বাটপাররা সরকারী আর্থিক সুবিধা পাওয়ার কার্ড করে দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।

অপর দিকে সরকারের সামাজিক নিরাপত্তা বলয় কর্মসুচীর আওতায় বিভিন্ন ভাতা ভোগীদেরকে বাধ্য করে নতুন মোবাইল নাম্বারের জন্য সিমের দাম বাবদ ৫ শ’ টাকা থেকে ৭শ’ টাকা জোর করে আদায় করা হয়েছে।

তারাই আবার রহস্যজনক কারণে ওইসহ ভাতা ভোগীরদের কার্ডে ভুল মোবাইল নাম্বার লিখে দিয়ে হয়রানিসহ ক্ষতির মধ্য ফেলেছেন ওইসব ভাতা ভোগীদের।

শুক্রবার বিকালে সরেজমিন ডাঙ্গা পাড়ায় ঘটনার বিষয়ে গ্রাম বাসীর কাছে জানতে চাইলে তারা প্রভাবশালী যুবলীগ নেতাসহ মেম্বারের শাস্তিসহ ক্ষোভ প্রকাশের পাশাপাশি আতংকিত হয়ে পড়েন।

এবিষয়ে সরকারের উর্ধবতন কর্তপক্ষের সুদৃষ্টি ও হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

বয়স্ক ভাতাভোগী ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের মৃত ইয়ানুস আলীর ছেলে শরিফুল ইসলাম (৬৮) বলেন, মোবাইল ফোনে বয়স্ক ভাতার টাকা আসবে তাই নতুন নাম্বারে নগদ একাউন্ট খোলার জন্য একটি সিমের দাম ৫শ’ টাকা নিয়ে একাউন্ট খুলে দিয়েছেন যা কার্ডে ভুল নাম্বার উল্লেখ্য করায় টাকা পাচ্ছিনা।

এ বিষয়ে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে মিলন ও মেম্বারের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ায় বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে