বাগমারায় টিকা নিয়েও ইউএনওসহ করোনায় আক্রান্ত আট

প্রকাশিত: জুন ১৮, ২০২১; সময়: ৮:২৩ pm |

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : দুই ডোজ টিকা নেয়ার পরেও রাজশাহীর বাগমারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ ও তার দপ্তরের কর্মচারীসহ আটজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এছাড়াও ইউএনও’র শিশু সন্তান অর্কও করোনায় আক্রান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসের চারজন রয়েছেন।

ইউএনও শরিফ আহম্মেদ করোনায় আক্রান্ত হওয়ায় উপজেলার সরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে করোনা আতংক বিরাজ করছে। এর আগেও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দপ্তর সূত্রে জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত কয়েক দিন থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে কর্মরত সিও শহিদুল ইসলাম গলা ব্যাথা ও সামান্য সর্দিজ্বর নিয়ে ভোগছিলেন। গত বৃহস্পতিবার তার শরীরের সমস্যার সৃষ্টি হলে তিনিসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীর করোনা পরীক্ষা করতে দেয়া হয়। করোনা পরীক্ষার পর ইউএনও শরিফ আহম্মেদসহ তার দপ্তরের ৮ জনের মধ্যে করোনা ভাইরাসের উপসর্গ পাওয়া যায়। এর পর থেকেই উপজেলার সকল দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

এ ব্যাপারে ইউএনও শরিফ আহম্মেদ নিজের অসুস্থতার কথা স্বীকার করে বলেন, সবাইকে সচেতন ভাবে চরাফিরা করতে হবে। এছাড়াও মাস্ক ছাড়া কেউ যেন বাহিরে বেরোতে না পারে সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে বলে তিনি জানান।

অপর দিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ গোলাম রাব্বানী বলেন, রাজশাহীর বাগমারাতে করোনা সংক্রমক বৃদ্ধি পেয়েছে। জনগন সচেতন না হওয়ায় তাদের পরীক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি জনগনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপস্থিত হয়ে করোনা পরীক্ষার আহবান জানিয়েছেন।

 

  • 260
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে