মেজ ভাইকে কুপিয়ে হাসপাতালে পাঠালো ছোট ভাই

প্রকাশিত: মে ২৯, ২০২১; সময়: ৮:৩৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় মেজ ভাই নান্টু ইসলামকে কুপিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন তারই সহোদর ছোট ভাই আলী আযম। শনিবার (২৯ মে) বিকেল ৪টায় বাঘা পৌর এলাকার ছাতারি গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর আহত নান্টু ইসলামকে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জান্নাতুল নাহার স্বপ্না জানান, ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার বুকের বাম দিকে গুরুতর জখম হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে উন্নতর চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, বাঘা পৌরসভার ছাতারি গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল ওয়াহাব মৃধা তার বসত ভিটায় পৃথক একটি ঘর নির্মাণ করতে চাচ্ছিলেন। এতে বাধ সাধেন তার মেজ ছেলে নান্টু ইসলাম। এনিয়ে ছেলে নান্টু ইসলামের সাথে কথা কাটাকাটি হয় আব্দুল ওয়াহাবের।

এক পর্যায়ে বাবাকে খড়ি ছুঁড়ে মারেন ছেলে নান্টু ইসলাম। সেই খড়ি মুখে লেগে আঘাতপ্রাপ্ত হন আব্দুল ওয়াহাব। মুখ দিয়ে রক্তঝরা দেখে আব্দুল ওয়াহাবের ছোট ছেলে আলী আযম ধারালো বঁটি দিয়ে কোপ মারেন তারই সহোদর মেজ ভাই নান্টু ইসলামকে ।

পৌরসভার স্থানীয় কাউন্সিলর আব্দুস সালাম বলেন, আব্দুল ওয়াবের ছোট ছেলে আলী আযমের বটির আঘাতে তার মেজ ছেলে নান্টু ইসলাম আহত হয়েছেন বলে শুনেছি। তাকে রাজশাহী মেডিকের কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বাঘা থানার ওসি (তদন্ত) মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে