সকালে বাবাকে মারপিটের পর সন্ধ্যায় ছেলেকে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত: মে ৩, ২০২১; সময়: ৮:৩১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় ভুট্টা ক্ষেতের পাতা ও ভুট্টা কাটতে বাঁধা দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সকালে বাবা মজিবর রহমানকে মারধর করেন প্রতিপক্ষরা। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে সন্ধ্যায় চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে মজিবর রহমানের ছেলে মো. পিপুলকে (৩৫)। ঘটনাটি উপজেলার আড়ানী পৌরসভার গোচর গ্রামে।

এ ঘটনায় মো. পিপুল বাদি হয়ে ২১ জনের বিরুদ্ধে বাঘা থানায় মামলা দায়ের করেছেন। প্রতিপক্ষদের বিরুদ্ধে নগদ টাকা, মোবাইল সেট এবং ফসলের মাঠ থেকে ভুট্টা কেটে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগও করা হয়েছে। সোমবার পুলিশ জামাল মন্ডল নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার (৩০ এপ্রিল) সকাল ৬টায় মো. পিপুলের (মামলার বাদি) বাবা মজিবর রহমান তার ভুট্টার ক্ষেতে গিয়ে দেখেন, গরিব মন্ডল ও তার দুই ছেলে শান্ত মন্ডল, আরিফ মন্ডল ও মোসলেমের দুই ছেলে রেজাউল, জামাল, মাসুম ও জামালের দুই ছেলে হৃদয় ও স্বপন ভুট্টার পাতা ও ভূট্টা কেটে বস্তায় ভর্তি করে মাথায় নিয়ে ক্ষেত থেকে বের হয়ে যাচ্ছে। তারা মজিবরকে দেখে দ্রুত চলে যেতে থাকে।

তাদের গতিরোধ করলে মুজিবর রহমানকে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন তারা। এক পর্যায়ে শান্ত মন্ডলের হাতে থাকা হাসুয়া দিয়ে মজিবরকে আঘাত করেন। এতে মজিবরের ডান হাতের শাহাদত আঙুল কেটে রক্তাক্ত হন। ওই সময় শান্ত মন্ডল মজিবরের জামার বুক পকেটে থাকা ৯০০ টাকা বের করে নেন, এবং ৫ বস্তা ভুট্টা নিয়ে চলে যান। পরে চিকিৎসার জন্য বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন মজিবর।

এদিকে মারপিটের ঘটনা জানতে গিয়ে প্রতিপক্ষ জামাল মন্ডলের সাথে কথা কাটাকাটি হয় আহত মজিবর রহমানের ছেলে মো. পিপুলের। এর জের ধরে সন্ধ্যা ছয়টায় পিপুলকে চাপাতি, বাঁশের লাঠি দ্বারা শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করেন প্রতিপক্ষরা। এই সুযোগে তার কাছে থাকা ৮৩ হাজার টাকা ও নোকিয়া মোবাইল ফোন জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেন তারা। প্রাণ রক্ষার্থে ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী মানিকের বাড়ির রান্না ঘরে আশ্রয় নেন মো. পিপুল। সেখানকার লোকজন তাকে উদ্ধার করে পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

ব্যক্তিগত প্রয়োজনে জামনগরে বাজার থেকে বাড়িতে ফেরার পথে গোচর গ্রামের আশকান মন্ডলের বাড়ির সামনে পাকা রাস্তায় পথরোধ করে পিপুলকে মারপিট ও কুপিয়ে জখম করা হয়। ঘটনায় পুরুষদের পাশাপাশি নারিরাও জড়িত ছিল বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে। সকালে ও সন্ধ্যায় সংঘটিত ঘটনার প্রেক্ষিতে ২১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৪/৫জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বাঘা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, মো. পিপুল বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। এ মামলায় গোচর গ্রামের মৃত মসলেম মন্ডলের ছেলে জামাল মন্ডলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

  • 31
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে