রাজশাহীতে অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের দাবি ইজারাদারদের

প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২১; সময়: ৪:১১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : অবৈধভাবে বালু উত্তোলন বন্ধের দাবি জানিয়েছেন রাজশাহীতে বালুমহাল ইজারাদাররা। তারা বলছেন, ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে রাজশাহী নগরের মধ্য শহর তালাইমারি কাজলা মৌজার বিস্তির্ণ চরাঞ্চল থেকে কতিপয় দুস্কৃতিকারি প্রতিরাতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন, মজুদ ও পরিবহন করছে।

ফলে কোটি কোটি টাকা রাজস্ব দিয়ে বালুমহাল ইজারা নেয়া ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন। গত ২৬ এপ্রিল দুইজন বালুমহাল ইজারাদার রাজশাহী জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিতভাবে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এরা হলেন, মেসার্স এসএস কর্পোরেশনের প্রোপাইটার হাসিবুর রহমান ও মেসার্স শুভ্রা এন্টারপ্রাইজের প্রোপাইটার জাহাঙ্গীর আলম। এ বছর তারা একটি করে বালুমহাল ইজারা পেয়েছে। তাদের লিখিত অভিযোগের অনুলিপি স্বরাষ্ট মন্ত্রাণালয়ের সচিব, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার, পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মতিহার থানার ওসি ও পবা উপজেলার সহকারি কমিশনারের (ভূমি) দপ্তারের দেওয়া হয়েছে।

তাদের অভিযোগ, হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা প্রশাসকের দেয়া আদেশ অমান্য করে রাজশাহী নগরের তালাইমারি এলাকায় অবৈধভাবে বালু তুলছেন দুস্কৃতিকারিরা। রাতের অন্ধকারে ইজারা বহির্ভুত এলাকা থেকে বালু তুলে নগরের মধ্য শহর তালাইমারী ঘাট দিয়ে পরিবহন করা হচ্ছে। এ জন্য পদ্মার বুকে তৈরী করা হয়েছে রাস্তাও।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তালাইমারি ঘাটে গিয়ে দেখা গেছে, একটি বাঁশ বেঁধে রাস্তায় বেরিকেট দেওয়া রয়েছে; যাতে পদ্মার বুকে যে রাস্তা তৈরী হয়েছে সেখানে গাড়ি যেতে না পরে। তবে ওই রাস্তায় গাড়ি চলাচল ও পাড়ের নিচের চর থেকে বালু তোলার চিহ্ন রয়েছে। বাঁশ মাড়িয়ে ট্রাক উঠা-নামার করেছে। এছাড়াও পাড়ের নিচের চরে ড্রেজিং করে বালু মজুদ করার জন্য দুইটি পেলুডার মেশিন লাগানো হয়েছে। প্রতিরাতে পাইপের মাধ্যমে উত্তোলন করে বালু মজুদ করা হচ্ছে।

তালাইমারি ঘাট এলাকার বাসিন্দা রমজান আলী বলেন, প্রতি রাত ৯টার পর থেকে ভোর পর্যন্ত চলে অবৈধ বালু কারবার। অর্ধশত ট্রাক চলাচল, পেলুডার ও স্কেভেটরের শব্দে পদ্মার পাড়ের মানুষ ঘুমাতে পারছেন না।

বালুমহাল ইজারাদার মেসার্স এসএস কর্পোরেশনের প্রোপাইটার হাসিবুর রহমান বলেন, কোটি কোটি টাকা রাজস্ব দিয়ে ব্যবসায়ীরা বালুমহার ইজারা নিয়েছে। কিন্তু রাতের আধারে ইজারাবহিভূত এলাকায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। প্রকাশ্যে এই অবৈধ বালু কারবার চালানো হলেও প্রশাসন কোন পদক্ষেপ নিচ্ছে না। এতে আমরা ব্যাপকভাবে আর্থিক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছি। অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধ না হলে বৈধ ইজারাদারা লোকসানের মুখে পড়বে বলেও জানান তিনি।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল বলেন, তালাইমারি এলাকায় কোন বালুমহাল বা ঘাট নেয়। কোনভাবেই সেখানে বালু উত্তোলন বা পরিবহন করতে দেয়া হবে না। রাতে সেখান দিয়ে কেউ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

  • 128
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে