বাঘায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধানসহ দুই জনের করোনা পজিটিভ

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৫, ২০২১; সময়: ৬:১৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : গত বছরও ঠিক এই সময় থেকেই বাঘায় ভয়াবহ রূপ নিতে শুরু করেছিল করোনাভাইরাস। চলতি মাসে একইরকম ভয়াবহ কোভিড-১৯ পরিস্থিতির মধ্যে যাচ্ছে বাঘা উপজেলা।

গত ১১ এপ্রিল থেকে ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত ৭ জনের এন্টিজেন পরীক্ষার পর করোনা পজিটিভ ধরা পড়েছে ২ জনের। এরা হলেন-উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রাশেদ আহমেদ ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাঃ সুলতানা পারভিন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ডাঃ রাশেদ আহমেদ বলেন, ৭ জনের এন্টিজেন পরীক্ষার পর ২ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। পরীক্ষার জন্য আরো ১০ জনের নমুনা পাঠানো হয়েছে। দৈনিক সংক্রমণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে টিকাকরণের সংখ্যাও বেড়েছে বলে জানান এই স্বাস্থ্য কর্মকর্তা।

জানা গেছে, গত বছরের এই সময় প্রথম করোনা ধরা পড়ে উপজেলার উত্তর গাওপাড়া গ্রামের আব্দুস সোবহানের। ১৭ এপ্রিল জ¦র ও শ^াসকষ্ট নিয়ে রামেক হাসপাতালে ভর্তির পর তার করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। কয়েকদিন পরে মারা যান তিনি।

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ৬ এপ্রিল থেকে এ বছরের ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে ১ হাজার ২১৪ জনের। আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭২ জনে। এর মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, চিকিৎসক, নার্স ও পুলিশসহ ব্যাংকাররাও ছিলেন। আক্রান্ত সকলেই সুস্থ হয়েছেন।

তবে উপজেলার বাইরে নমুনা পরীক্ষায় পজিটিভ হওয়া তিনজন মারা গেছে। তারা হলেন- উপজেলার উত্তর গাওপাড়া গ্রামের আব্দুস সোবহান, পাকুড়িয়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আলীম উদ্দীন (৭০)। এছাড়া করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা গেছে মনিগ্রামের মৃত আমজাদ আলীর ছেলে শান্ত হাসান সেন্টু (৩৫)। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউতে) চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা জানান, ফের জোরদার করা হয়েছে করোনাবিধি। স্কুল বন্ধ। সকল এলাকায় বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে প্রতিদিন অভিযান চলছে।

  • 102
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে