রাজশাহীতে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

প্রকাশিত: এপ্রিল ১১, ২০২১; সময়: ৯:১১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে জাকির হোসেন শাওন নামে এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আইনের আশ্রয় নেয়ায় ওই গৃহবধূর পিতার বাড়িতে সশস্ত্র হামলা চালিয়ে বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাংচুর করারও অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার (১১ এপ্রিল) বিকেলে রাজশাহী প্রেসক্লাবে সাংবাদিকদের কাছে এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী গৃহবধূ মোছা. জুথি খাতুন। তিনি নগরীর হেতম খাঁ লিচুবাগান এলাকার সাইফুল ইসলামের মেয়ে। আর অভিযুক্ত জাকির হোসেন শাওন একই এলাকার কিসমত আলীর ছেলে।

জুথি খাতুন বলেন, ২০১০ সালের ৭ জুলাই শাওনের সঙ্গে পারিবারিকভাবে আমার বিয়ে হয়। তবে ধার্যকৃত ৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা মোহরানা পরিশোধ না করে উল্টো ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে শাওন। টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করায় বিভিন্ন সময়ে আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। বিয়ের ৭ বছরের মাথায় ২০১৭ সালে সে আমাকে হত্যা করতে উদ্যত হয়। তার নির্যাতনে আমার একটি চোখ নষ্ট হয়ে যায়।

জুথি খাতুন জানান, সুস্থ হওযার পর আইনের আশ্রয় নিয়ে আদালতে নারী নির্যাতন মামলা দায়ের করলে শাওন দলবল নিয়ে তার পিতার বাড়িতে হামলা চালায়। ভেঙ্গে ফেলে বাড়ির দরজা-জানালাসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র।

সর্বশেষ গত শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিকেলের হামলায় তার বাড়ির লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। শাওন প্রতিনয়ত হুমকি দিয়েই চলেছে বলেও তার অভিযোগ।

জুথি খাতুনের দাবি,  তার অন্যায়-অপকর্ম, অবৈধ কার্যকলাপ এবং নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে গত ৯ মাস আগে শাওনের কাছ থেকে আলাদা হয়ে গেছেন বলেও জানিয়েছেন জুথি। এসব ঘটনায় শাওনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জাকির হোসেন শাওন তার বিরুদ্ধে সকাল  অভিযোগ অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। আইনগত ভাবে এর মোকাবেলা করা হবে। তবে তিনি অন্যায় কিছু্ করেননি বলেও দাবি করেন তিনি।

এ ব্যাপারে আরএমপির বোয়ালিয়া মডেল থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ জানান, জুথি ও শাওনের মধ্যে তালাক হয়ে গেছে। তবে নারী নির্যাতন মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। ঘটনার সঠিক তদন্ত করে এবং আদালতের নির্দেশ মোতাবেক যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • 232
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে