রাজশাহীতে পুলিশ হেফাজতে আসামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২১; সময়: ৫:২৪ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার হেফাজতে এক আসামি হারপিক পান করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার কার্যালয়ে এ ঘটনার পর তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে তিনি নগরীর লক্ষ্মীপুরে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) ডিবি কার্যালয়ে হারপিক পান করেন।

ওই আসামীর নাম নাম মো. রবিন (২৩)। তিনি ছিনতাই মামলার আসামী। নগরীর বোয়ালিয়া থানার সাধুর মোড় এলাকায় তাঁর বাড়ি। বাবার নাম মৃত মোস্তফা।

আরএমপির ডিবির উপ-কমিশনার (ডিসি) আবু আহাম্মদ আল মামুন জানান, গত শনিবার নগরীর মহিষবাথান এলাকায় একটি ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। তিন-চারজন ছিনতাইকারী ছুরি ধরে রওশন আরা বেগম নামে এক নারী ও তাঁর ছেলের কাছ থেকে একটি স্মার্টফোন এবং নগদ সাড়ে পাঁচ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় রওশন আরা ডিবি পুলিশে অভিযোগ দেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে ডিবি পুলিশ ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়া ফোনটির অবস্থান শনাক্ত করে মঙ্গলবার সকালে ফোনসহ রবিনকে আটক করে। এরপর তাঁর বিরুদ্ধে নগরীর রাজপাড়া থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী নারী। পরে আসামিকে আদালতে নেয়ার জন্য ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়। তখন তিনি শৌচাগারে যেতে চান।

একজন পুলিশ সদস্য তাঁকে শৌচাগারে নিয়ে যান। তিন মিনিট পর রবিন শৌচাগার থেকে বেরিয়ে আসেন। এরপর হাজতে অসুস্থ হয়ে পড়েন। তখন তিনি পুলিশকে জানান যে, শৌচাগারে তিনি হারপিক পান করেছেন। এরপর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ডিসি আবু আহাম্মদ আল মামুন আরও জানান, বর্তমানে তাঁর শারীরিক অবস্থা ভাল বলে চিকিৎসক তাঁদের জানিয়েছেন। সুস্থ হওয়ার পর তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। আসামি রবিনের বিরুদ্ধে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় আরও ছয়টি মামলা আছে বলেও জানান তিনি।

  • 254
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে