বাগমারায় চুরি যাওয়া আট লাখ টাকা উদ্ধার, আটক ১

প্রকাশিত: এপ্রিল ৬, ২০২১; সময়: ৩:২৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় জানালা ভেঙে চুরির কয়েক ঘন্টা পরেই আট লাখ টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মামুন হোসেন (২৩) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠিয়েছে বাগারা থানা পুলিশ। মামুন হোসেন উপজেলার চানপাড়া গ্রামের কলিম উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্থানীয় রমজান আলী নামের একজন মাছ ব্যবসায়ী ভবানীগঞ্জ সিনেমা হল সংলগ্ন এলাকায় আড়ৎ বসিয়ে মাছ কেনা-বেচা করে আসছিলেন। সোমবার (৫ এপ্রিল) তিনি বাঁকিতে আট লাখ টাকার মাছ কেনেন। মাছ কেনার টাকা সন্ধ্যার পর পরিশোধের জন্য তিনি স্থানীয় সোনালী ব্যাংকের শাখা থেকে আট লাখ টাকা উত্তোলন করেন।

পরে টাকাগুলো তাঁর ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিগত কক্ষের টেবিলের ড্রয়ারে রেখে তালা লাগিয়ে দেন। তিনি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ঘরের তালা লাগিয়ে পাশের চায়ের দোকানে যান। এই সুযোগে মামুন হোসেন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের জানালা ভেঙে ভেতরে ঢুকেন। তিনি ড্রয়ারের তালা ভেঙে সেখানে থাকা আট লাখ টাকা চুরি করেন। তিনি ১৫-২০ মিনিট পরে চায়ের দোকান থেকে ফিরে কক্ষের জানালা ও টেবিলের ড্রয়ার ভাঙা অবস্থায় দেখতে পান। ড্রয়ারে রাখা আট লাখ টাকার সবগুলো খোয়া অবস্থায় দেখতে পেয়ে চিৎকার শুরু করেন।

পরে টাকা উদ্ধার ও চোর সনাক্তের চেষ্টা করা হয়। ব্যর্থ হয়ে রাতে থানায় অভিযোগ দেওয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় পুলিশ, ব্যবসায়ী ও স্থানীয়দের দেওয়া তথ্য মোতাবেক স্থানীয় মামুন হোসেন নামের এক যুবককে আটক করে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি টাকাগুলো চুরির কথা স্বীকার করেন। তাঁর দেওয়া তথ্য মোতাবেক বাড়ির টয়লেটের প্যানের ভেতর থেকে রাতেই টাকাগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। পরিবারের দাবি মামুন হোসেন মাদকসেবী। এর আগে পরিবারের পক্ষে তাঁকে পুলিশে দেওয়া হয়েছিল।

বাগমারা থানার ওসি মোস্তাক আহম্মেদ বলেন, মামুন হোসেনের দেওয়া তথ্য মোতাবেক টাকাগুলো তার বাড়ির টয়লেটের প্যানের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এই বিষয়ে থানায় ব্যবসায়ী রমজান আলী থানায় মামলা করেছেন। আদালতের মাধ্যমে উদ্ধার হওয় টাকা ব্যবসায়ীকে ফেরত দেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে