রমজানের আগেই তেল মুরগির দাম চওড়া

প্রকাশিত: এপ্রিল ৩, ২০২১; সময়: ১০:৪৭ am |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রমজান মাস শুরুর দশ দিন আগে থেকেই রাজশাহীর বিভিন্ন বাজারে বেড়েছে তেল ও ব্রয়লার মুরগির দাম। তবে গত কিছুদিন কয়েক দফা বাড়লেও চলতি সপ্তাহে চালের দাম কিছুটা কম। প্যাকেটজাত সয়াবিন লিটার প্রতি ১৩০ থেকে ১৩৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতিকেজি খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকা থেকে ১২৫ টাকা। পামওয়েল তেল লিটারে বিক্রি হচ্ছে ১১৫ টাকা থেকে ১১৭ টাকা, পাঁচ লিটার সয়াবিন তেল ৬২৫ টাকা। ব্রয়লার মুরগি ১৫৫ টাকা থেকে ১৬০ টাকা। চিনি ৬৮ টাকা। এছাড়া সবজির দামও অপরিবর্তিত রয়েছে।

মুদি দোকানিরা বলছে, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের মধ্যে ভোজ্যতেলের দাম কয়েক মাস থেকে বাড়তি। তবে রমজান মাসে পণ্যের দাম প্রতিবারই কিছুটা বাড়ে। সরকারীভাবে মূল্যে নির্ধারণ করে দেয়ার পরও তাদেরকে বেশি দামে কিনতে হচ্ছে। খুচরা তেলের দামও বেশি। এতে ক্রেতাদের মাঝে বিরুপ প্রতিক্রিয়াও আছে। এমনকি তেলের দাম বেড়ে যাবে এটার আগাম বার্তা কোম্পানিও দিয়ে যাচ্ছে।

গতকাল শুক্রবার (২ এপ্রিল) নগরীর বিভিন্ন খুচরা বাজার ঘুরে দেখা গেছে, দেশি পেঁয়াজের কেজি ২৫ থেকে ৩০ টাকা। আর আলুর বিক্রি হচ্ছে ২০ থেকে ২২ টাকা কেজি দরে। অপরদিকে, চালের দোকান ঘুরে দেখা যায়, প্রতিকেজি আটাশ চাল ৫৭ থেকে ৫৮ টাকা, মিনিকেট ৬৩ থেকে ৬৫ টাকা, গুটি স্বর্ণা ৪৬ থেকে ৪৮ টাকা, চিনিগুড়া ৮৫ থেকে ৯০ টাকা, বাসমতি ও নাজিশাল ৬৮ থেকে ৭০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। ডালের মধ্যে মসুরের ডাল ৭০ থেকে ১০০ টাকা, মুগের ডাল ১৩০ টাকা, কালাইয়ের ডাল ১২০ টাকা, বুটের ডাল ৭৫ থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

সবজির মধ্যে ঢেড়স ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, পটল ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, করলা ৬০ থেকে ৬৫ টাকা, সজনে ৬০ থেকে ৮০ টাকা, বেগুন ১৫ থেকে ৩০ টাকা, সিম ১৫ থেকে ২০ টাকা, গাজর ১৫ থেকে ২০ টাকা, টমেটো ২০ থেকে ৩০ টাকা, শসা ২০ থেকে ২৫ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ২০ থেকে ২৫ টাকা, কাঁচামরিচ ১০ থেকে ১৫ টাকা, বাধাঁকপি ১০ টাকা, মটরশুটি ২০ থেকে ৩০ টাকা, ডুমুর ৩০ থেকে ৩৫ টাকা, প্রতিপিস লাউ ১০ থেকে ২০ টাকা, ফুলকপি ১০ থেকে ২০ টাকা, কাঁচা কলা ২০ থেকে ২৫ টাকা এবং প্রতি আটি লাল শাক, সবুজ শাক ও পালং শাক বিক্রি হচ্ছে ১০ থেকে ২০ টাকা। এছাড়া পেঁয়াজ ২৫ থেকে ৩০ টাকা, রসুন ৬০ থেকে ৮০ টাকা, আদা ৬০ থেকে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

মাংসের মধ্যে গরুর মাংস ৫৫০ টাকা, খাসির মাংস ৮০০ টাকা, দেশি মুরগি ৩০০ টাকা থেকে ৩৩০ টাকা, সোনালি মুরগি ২৫০ টাকা থেকে ২৮০ টাকা, লেয়ার মুরগি ১৯০ টাকা থেকে ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া রাজহাঁস ৪৫০ টাকা ও পাতিহাঁস ২৭৫ থেকে ২৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে, মাছের মধ্যে প্রতিকেজি ইলিশ ৩০০ থেকে ৯০০ টাকা, চিংড়ি ৫০০ থেকে ১ হাজার টাকা, রুই ১৪০ থেকে ২৫০ টাকা, কাতল ১৮০ থেকে ৩০০ টাকা, মিরকা ১২০ থেকে ২০০ টাকা, পাঙ্গাস ৮০০ টাকা, বোয়াল ৩০০ থেকে ৭০০ টাকা, কৈ ২০০ থেকে ৫০০ টাকা, শৈল ৩০০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে