রাজশাহীতে স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেয় গণপরিবহনে

প্রকাশিত: মার্চ ৩১, ২০২১; সময়: ৩:৫৫ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের পাশাপাশি স্বাস্ব্যবিধি মেনে চলার নির্দেশনা থাকলেও ভিন্ন চিত্র দেখা গেছে রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে। নূন্যতম দূরত্ব নিশ্চিত না করে গাদাগাদি করেই টিকিটের জন্য লাইনে দাড়াচ্ছেন যাত্রীরা। অনেকেই দেখা গেছে মাস্ক ছাড়া। এসব বিষয়ে অনেকটাই উদাসীন রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহী রেল স্টেশন ম্যানেজার আব্দুল করিম বলেন, হঠাৎ করে এমন নির্দেশনা আসায় এখনও প্রস্তুতি নিতে পারেনি রেল কর্তৃপক্ষ। তবে আগামীকাল থেকে কঠোরভাবে নির্দেশনা পালন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্টেশন ম্যানেজার।

এদিকে, গণপরিবহনে অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করার কথা থাকলেও বাসের ভেতর মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি। তবে বাড়তি ভাড়া আদায় করছে পরিবহনগুলো। আর অক যাত্রী নিয়ে চলার কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। অর্দ্ধেকের বেশি যাত্রী নিয়েই রাজশাহীর বাস স্ট্যান্ড গুলোতে চলছে দূর পাল্লার যানবহন গুলো।

পরিবহন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, যাত্রীরাই জোর করে বাসে উঠে যাচ্ছেন। আর যাত্রীরা জানাচ্ছে পরিবহন সংশ্লিষ্ঠরা ইচ্ছে মতো যাত্রী তুলছে যানবহন গুলোতে। ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া আদায়ের কথা থাকলেও অনেক পরিবহন গুলো ১০০ শতাংশ ভাড়া আদায় করছে। আবার দুই আসনে একজন নেয়ার কথা থাকলেও সেটি মানা হচ্ছে না।

বুধবার রাজশাহীর শিরোইল ও ভদ্রা বাস স্ট্যান্ড এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, বেশির ভাগ যাত্রী মাস্ক না পড়েই টিকিট কাউন্টারে টিকিট কাটে যানবহনে উঠছে। বাসে উঠার আগে বেশির ভাগ বাসে হ্যান্ডস্যানিটাইজারের ব্যবস্থা নেই। থাকলেও তার ব্যবহার সীমিত।

কথা হয় কয়েকজন যাত্রীদের সাথে যাত্রীরা জানান, অর্দ্ধেক যাত্রী নিয়ে বাসে চলাচলের নিয়ম থাকলেও সংশ্লিষ্ঠরা বেশি যাত্রী যানবহনে তুলছে। ভাড়া নিয়ে সকল যাত্রীরাই ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া নেওয়ার কথা থাকলেও অনেক পরিবহন ১০০ শতাংশ বেশি ভাড়া আদায় করছে।

কথা হয় বাসের ডাইভারসহ সংশ্লিষ্ঠদের সাথে তারা জানান, বাস মালিক ও শ্রমিক নেতারা তাদের নির্দেশনা দিয়েছে মাস্ক পড়ে হ্যান্ডস্যানিটাইজার ব্যাবহার করে সকল যাত্রীদের বাসে উঠতে হবে। অতিরিক্ত ভাড়া ও বেশি যাত্রী নিয়ে বাস চলার বিষয়ে তারা অস্বীকার করেন।

 

  • 260
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে