রাজশাহীতে দেড় কোটি টাকার জমি দখলে চেষ্টা

প্রকাশিত: মার্চ ২৮, ২০২১; সময়: ১১:১০ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহীতে অবসরপ্রাপ্ত এক প্রকৌশলীর দেড় কোটি টাকা মূল্যের জমি দখলে নেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভুক্তভোগী প্রকৌশলী আবদুর রাজ্জাক সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে সহায়তা পেতে তিনি প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

আবদুর রাজ্জাকের বাড়ি নগরীর কোর্ট স্টেশন এলাকায়। তিনি রাজশাহী সিটি করপোরেশনের (রাসিক) প্রকৌশলী ছিলেন। নগরীর হড়গ্রাম নগরপাড়া এলাকায় তার পৌনে দুই বিঘা জমি দখল করার চেষ্টা চলছে। এ নিয়ে রোববার ওই জমির পাশেই সংবাদ সম্মেলন করেন রাজ্জাক।

তিনি বলেন, ২০১০-১১ সালে এই এলাকায় তিনি তার স্ত্রী খালেদুন নেসার নামে জমি কেনেন। ৫১ নম্বর হড়গ্রাম মৌজার এই জমির পরিমাণ পৌনে দুই বিঘা। জমির দাগ নম্বর এসএ-৪৮১ ও আরএস-১৭১৫। বর্তমানে জমিতে আমবাগান রয়েছে। জমিটি তিনি এখন বিক্রি করতে চান। তাই সম্প্রতি তিনি সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে আসেন। কিন্তু তিনি বাধার সম্মুখীন হন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে স্থানীয় বাসিন্দা রিয়াজুল ইসলাম ও তার ভাই মেরাজুল ইসলাম তাদের বাধা দেন। তারা দাবি করেন, এই জমি তাদের কেনা সম্পত্তি। কিন্তু তারা কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। কার কাছে কিনেছেন সেটাও বলেননি। জমির পাশেই বাড়ি বলে সেখানে গেলে এ দুই ভাই প্রকৌশলীকে বিতাড়িত করছেন। জমিতে গেলে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হচ্ছে বলেও জানানো হয়।

আবদুর রাজ্জাক বলেন, আমার জমির সব কাগজপত্র আছে। জমিটির এখন বাজারমূল্য প্রায় দেড় কোটি টাকা। ২০১০-১১ সালে আবদুস সোবহান নামে এক ব্যক্তির ১০ ওয়ারিশের কাছ থেকে কেনার পর এ পর্যন্ত খাজনা-খারিজ সব করা আছে। তারপরও আমার জমি দখলে নেয়ার পাঁয়তারা চলছে। তিনি জানান, এ ব্যাপারে পুলিশের সহায়তা চাইলেও পাওয়া যায়নি।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে নগরীর কাশিয়াডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ বলেন, এ ধরনের কোন বিষয় তার মনে পড়ছে না। অভিযুক্ত রিয়াজুল ইসলামের বক্তব্য জানতে তার সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন কথা বলতে চাননি।

  • 247
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে