বাগমারায় শত্রুতার আগুন পানবরজে

প্রকাশিত: মার্চ ২৩, ২০২১; সময়: ৯:১৪ pm |

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় শত্রুতামূলক অগ্নিকান্ডে পান বরজে প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। এলাকার লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে পান বরজে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার যোগীপাড়া ইউনিয়নের ভটখালী গ্রামে।

খবর পেয়ে বাগমারা ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে গেলেও গাড়ি যাওয়ার রাস্তা না থাকায় সেখানে পৌঁছার আগেই পানবরজ গুলো পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের অভিযোগ শত্রুতামূলক ভাবে তাদের পানবরজে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটিয়েছে।

এলাকার লোকজন জানান, মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার যোগীপাড়া ইউনিয়নের ভটখালী গ্রামের লুৎফর রহমান, আব্দুল জব্বার, বেলাল উদ্দীন ও নুরুল ইসলামের পান বরজে আগুন দেখতে পান স্থানীয় লোকজন। লোকজন আগুন দেখে চিৎকার শুরু করলে এলাকার লোকজন সংঘবদ্ধ ভাবে আগুন নেভানোর জন্য ঘটনাস্থলে আসেন।

লোকজন আসার আগেই আগুনের লেলিহান শিখা চারীদিকে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনের তাপে লোকজন পানবরজের আশেপাশে ঢোকতে পারেনি। নিমিশের মধ্যে আগুন পানবরজের চারপার্শ্বে ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় লোকজন আগুন নেভাতে ব্যর্থ হয়ে বাগমারা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেয়।

খবর পেয়ে বাগমারা ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। অগ্নিকান্ডের জায়গায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঢোকার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। রাস্তা না থাকায় অগ্নিকান্ডের জায়গায় ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি পৌঁছতে না পারায় চার কৃষকের পানবরজ আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডে পানবরজ পুড়ে কৃষকের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয় বলে তারা জানান।

তবে বাগমারা ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রাস্তা না থাকায় তাদের গাড়িটি অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পারেনি। তাদের গাড়িটি পৌঁছতে পারলে পানবরজ গুলো আগুনের হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হত বলে তারা জানিয়েছেন।

যোগীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল জানান, অগ্নিকান্ডে চার কৃষকের প্রায় ১৫ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে। তাদের রোজগারের একমাত্র পথ ছিল পান বরজ। তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে তিনি কৃষকদের সহযোগীতা করার চেষ্টা করছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

বিকেলে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান অগ্নিকান্ডের ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের খোঁজখবর ও অগ্নিকান্ডের বিষয় জানা চেষ্টা করেন। তারা অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের মধ্যে খাবার ও নগদ অর্থ বিতরন করেছেন। এছাড়াও ক্ষুতগ্রস্ত কৃষকদের সরকারী ভাবে সব ধরনের সুযোগ সবিধা দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে