রাজশাহীতে জেলা প্রশাসককে মুক্তিযোদ্ধাদের স্বারকলিপি

প্রকাশিত: মার্চ ২৩, ২০২১; সময়: ৩:৪৬ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে রাজশাহীতে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জরুরী সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) সকালে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ভবনে এক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় রাজশাহী মহানগর মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের প্রাক্তন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. আব্দুল মান্নানের সভাপতিত্বে সভায় এ্যাডভোকেট সাইদুল ইসলাম, হাকিম আতাউর রজমান, রবিউল ইসলাম, শুকুর উদ্দিন, খন্দকার আবুল হাসান, আবুল বাশার, শাহাদুল হক মাস্টার, সুখেন মুখার্জী, আবুল কালাম আজাদ, ইয়াসিন আলী মোল্লা, সন্তান কমান্ডের রজব আলী, জামাল উদ্দিন, জহিরুদ্দিন জোসী ও অধ্যাপক রুহুল আমিন প্রামাণিকসহ ১৫০ জন মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে রাজশাহীর গুরুত্বপূর্ণ স্থানে আলোচনা সভা, মুক্তিযুদ্ধের গান পরিবেশনসহ শহরে জনগণের মাঝে ২৪ মার্চ থেকে জাতীয় পতাকা বিতরণ ও ২৫ শে মার্চ রাতের প্রথম প্রহরে জাতীয় নেতা শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান চত্বরে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা সহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এ সভা শেষে তারা জেলা প্রশাসকের কাছে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে যায়। এবং তাদের কিছু দাবি ও অভিযোগ তুলে ধরেন। বেলা ১ টায় তারা জেলা প্রশাসকের কার্যলয়ে গিয়ে কথা বরেন। এ সময় স্বর্থসাপেক্ষে মুক্তিযোদ্ধারা সংবর্ধনা অনুষ্ঠান যোগদানের সিদ্দান্ত নেয়।

তারা জানান, জেলা প্রশাসনের এডিসি জেনারেল এর তত্ত্বাবধানে জামুকা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ২০২০ এর নীতিমালা এবং নির্দেশিকা সম্পূর্ণরুপে অমান্য অমান্য করে যাচাই-বাছাই করা হয়েছে। তার প্রতিবাদে জেলা প্রশাসন কর্তৃক মুক্তিযোদ্দাদের সংবর্ধনার যে আয়োজন কয়েছে এই সভা সর্বসম্মিতিক্রমে তা বর্জন করে নিজেদের গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রতিপালন করবার সিদ্দান্ত গ্রহণ করা হয়। যাচাই-বাছাই কমিটির বিতর্কিত যারা রয়েছে তাদের বাদ দিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করার বিষয়ে জানান। এ সময় তারা জেলা প্রশাসককে এ বিষয়ে একটি স্বারকলিপি দেয়।

 

  • 63
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে