বিমানবন্দরে রাসিক কাউন্সিলরের কান্ড

প্রকাশিত: মার্চ ১৫, ২০২১; সময়: ১:৫৪ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী শাহ মখদুম বিমানবন্দরের অভ্যন্তরে তল্লাশি ছাড়া ঢুকতে না দেওয়ায় আর্ম সিকিউরিটি ফোর্সের সদস্যকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। রাজশাহী সিটি করপোরেশনের ১৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনারের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলামকে বিদায় জানাতে রাসিক কর্মকর্তা ও কাউন্সিলরা সেখানে উপস্থিত হলে রোববার বেলা পৌনে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে সিটি করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়।

আর্ম সিকিউরিটি ফোর্সের সদস্য শাহীন রেজা বলেন, আমাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। পরে ঊর্ধ্বতনদের মাধ্যমে বিষয়টি মীমাংসা হয়েছে।

কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনার দাবি করেন, তল্লাশির নামে ওই নিরাপত্তাকর্মী তাকে হয়রানি করেছেন। এ কারণে তার সঙ্গে কথাকাটাকাটি হয়েছে। তবে গায়ে হাত তোলার কোনো ঘটনা ঘটেনি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার একদিনের জন্য রাজশাহী সফর শেষে রোববার বেলা পৌনে ১১টার দিকে এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম রাজশাহী শাহ মখদুম বিমানবন্দর থেকে বিমানযোগে ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেওয়ার জন্য বিমানবন্দরে পৌঁছান। এ সময় রাজশাহী সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা ও কাউন্সিলররা তাকে বিদায় জানাতে বিমানবন্দরে যান।

এদের মধ্যে ১৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনারও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সবাইকে তল্লাশি করছিলেন। আনারকেও নিরাপত্তাকর্মীরা তল্লাশি করতে চাইলে তিনি আপত্তি তুলেন।

এ নিয়ে কথাকাটাকাটির জের ধরে কাউন্সিলর আনার নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য শাহীন রেজাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন। এ নিয়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে তাৎক্ষণিক সিটি করপোরেশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

বিমানবন্দর থানার ওসি নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, সামান্য কথাকাটাকাটি হয়েছে। এর বাইরে তেমন কিছু হয়নি। কেউ কোনো অভিযোগও করেননি।

  • 158
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে