রাজশাহীতে মাদক দিয়ে অন্যকে ফাঁসাতে গিয়ে পুলিশের জালে যুবক

প্রকাশিত: মার্চ ১০, ২০২১; সময়: ১০:৫২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : পরকীয়ায় জড়িয়ে স্ত্রী অন্যের সঙ্গে সংসার পাতেন। কিন্তু বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি স্বামী মনিরুল ইসলাম সজল (২৯) নামে রাজশাহীর এক যুবক। সাবেক স্ত্রীর স্বামীকে ফাঁসাতে তার মোটরসাইকেলে ১০ গ্রাম হেরোইন ও ৮ পিস ইয়াবা লুকিয়ে রেখেছিলেন। কিন্তু নিজের পাতা ফাঁদে পুলিশের জালে ধরা পড়েছেন নিজেই।

মঙ্গলবার রাতে রাজশাহী বিশ্বববিদ্যালয় সংলগ্ন বিহাস এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে নগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ নিয়ে বুধবার দুপুরের দিকে নগরীর মতিহার থানায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। দুপুরের পর তাকে আদালতে চালান দেওয়া হয়েছে। সজল নগরীর চন্দ্রিমা থানার মেহেরচন্ডি পূর্বপাড়া এলাকার মোতালেব ইসলামের ছেলে।

রাজশাহী নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ-কমিশনার আরেফিন জুয়েল এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, তার (সজল) সাবেক স্ত্রীর স্বামী রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদারবক্স হলের গার্ড হিসেবে কর্মরত। তার মোটারসাইকেলে মাদক লুকানো আছে মর্মে পুলিশকে খবর দেন সজল।

পরে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল হেফাজতে নেয় তার সাবেক স্ত্রীর স্বামীকে। তার মোটরসাইকেলের সাইলেন্সার পাইপের স্টিলের কভারের ভেতরে লুকানো অবস্থায় ১০ গ্রাম হেরোইন ও ৮ পিস ইয়াবা উদ্ধার হয়। এ সময় জিজ্ঞাসাবাদে ওই ব্যক্তি মাদক রাখার কথা অস্বীকার করেন। তার মাদক সেবন কিংবা কারবারেরও তথ্য পায়নি পুলিশ। এক পর্যায়ে পুলিশে সংবাদদাতা সজলকে হেফাজতে নেয় পুলিশ।

জিজ্ঞাসাবাদে সজল স্বীকার করেন, পরকীয়ার জড়িয়ে তার স্ত্রীকে ভাগিয়ে নেয় ওই ব্যক্তি। প্রতিশোধ নিতেই তিনি তাকে মাদক মামলায় ফাঁসাতে চেয়েছিলেন।

  • 243
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে