তানোরে যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে রাতারাতি সম্পত্তি দখল নেয়ার অভিযোগ

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২০, ২০২১; সময়: ১০:৫৭ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরেন্দ্র অঞ্চল : দিনে পছন্দ করে রাখেন অন্যের জমির পজিসন। রাত হলেই সেই পছন্দের জমিতে কুড়ে ঘর বানানোর জন্য টিনের ছাউনি কিছু বাঁশ কাট রেখে আসা হয়। আর সকাল থেকে সেই জমির উপর পাহারা বসানো হয় কযেকজন নারী সদস্যকে। জমির মালিক প্রতিবাদ করলে নারী সদস্যদের দিয়ে মোকাবেলা করান। আর তাতে নারী ঘটিত মামলা-মোকাদ্দেমার ভয় পেয়ে পিছে হটে আসেন জমির মুল মালিক।

সরকারী খাস বা ব্যাক্তিমালিকাধীন হোক দখলদারের হাতে পুকুর বা সম্পত্তি বাদ যাচ্ছেনা। বিশেষ করে রাজশাহীর তানোর উপজেলার বাধাইড় ইউপির এলাকায় সক্রিয় এ ভূমিদস্যু চক্রটি। আর এসব সম্পত্তি দখলের নেতৃতে আছেন ইউনিয়ন যুবলীগ-আওয়ামীলীগের একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট।

২০০৮ সাল হতে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতাই আসার পর থেকে ভূমি জালিয়াতীর একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট গড়ে তোলেন বাধাইড় ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন। পরে তার সিন্ডিকেটের সঙ্গে যুক্ত হন বাধাইড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম (মাষ্টার)সহ আরো কয়েকজন নেতা।

এখন পর্যন্ত ভূমিদস্যু চক্রটি বাধাইড় ইউপির উচাডাঙ্গা,ঝিনাইখোর,হাফানিয়া এলাকার প্রায় ২৫ থেকে ৩০ বিঘা জমি জালিয়াতীর মাধ্যমে দখল করেছেন। তার মধ্যে বেশি ভাগ সম্পত্তি সরকারী খাস খতিয়ান ভুক্ত। কিছু ব্যাক্তিমালিকাধীন ও রয়েছে। দখল করা এসব জমি পজিসন বুঝে ৫শতক বা ১০ শতক করে বিক্রি করেছেন। এতে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিছেন তারা। আর টাকার বিনিময়ে এসব সম্পত্তি ক্রয় করা ব্যাক্তিরা ভূমিহীনের বেস ধরে দখল করা জমিতে ছোট খাটো বসত বাড়ি বানিয়ে বসবাস করছেন।

সর্বশেষ গত মাসে ঝিনাখোর মৌজার বাচ্চু নামের এক ব্যাক্তির সরিষার চাষ করা ৫০ শতক জমির উপরে রাতে আধারে টিনের ছাউনি ও কিছু বাঁশ দখলের উদ্যোশে রেখে আসেন যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিনসহ তার লোকজন। পরের দিন থেকে সেই রেখে আসা টিনের ছাউনি বাঁশগুলো কয়েকজন নারী সদস্যকে দিয়ে রীতিমত পাহারা বসানো হয়। নারীদের পাহারা বসানোর কারণে জমির মালিক মামলার ভয়ে তার সম্পত্তি উদ্ধার করতে পারছেনা। অবশেষে আদালতে মামলা করেন। থানা পুলিশের দারস্ত হয়েছেন।

বাচ্চু মিয়া বলেন, চলতি রবিসশ্য মৌসুমে তিনি জমিতে সরিষা চাষ করেছেন। এমন অবস্থায় হঠাৎ করে গত মাসে সে সরিষার ক্ষেতের মধ্যে যুবলীগ নেতা ও বহিরাগত মফিজ উদ্দিন মিলে তার সরিষার ক্ষেতে টিনের ছাউনি রেখে দখর করা পাইতারা করছেন।

তানোর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক জুবায়ের ইসলাম বলেন, বাধাইড় ইউপির ৬ নং ওয়ার্ড সভাপতি আলাউদ্দিনের নামে জমি দখলের অনেক অভিযোগ আছে। তারা আওয়ামী লীগের নাম ভেঙ্গে দীর্ঘদিন যাবত এমন কাজ করছে। এর মুল হোতা ইউনিয়ন আওয়ামলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম মাষ্টার। রবিউল মাষ্টার এক বছর আগে প্রায় ৬ বিঘা সরকারী জমি দখল করে পল্ট করে বিক্রি করেছেন। এতে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। আমরা যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিন এসব অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন, তিনি এলাকার অনেক গরীব মানুষের উপকার করেন। কেউ বলতে পারবেনা সে কোন জমি দখল করেছেন। আর এলাকার মধ্যে বাচ্চু একজন ভূমিদস্যু এটা সবার জানা।

ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম মাষ্টার বলেন, তিনি এলাকার মানুষের সমাজ সেবার কাজ করেন। ভাল মন্দ সব লোক তার কাছে যে কোন বিষয় নিয়ে আসেন। সমাধান করা চেষ্টা করেন মাত্র। জমি দখল ও টাকা হাতিয়ে নেওয়ার বিষয়টি ভিক্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি।

বাধাইড় ইউপি বর্তমান চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান বলেন, শুধু যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিন একায় নয়, দুইটি ভূমিদস্যু চক্র আছে। অপর টি বাচ্চু দল। বাচ্চুকে উপজেলা যুবলীগের একজন নেতা সহায়তা করেন। আর যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিনকে সহায়তা করেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের এক নেতা। এদের অত্যাচারে শুধু আমি নয়, সাধারণ মানুষও অতিষ্ঠিত।

তানোর থানা অফিসার ইনচার্জ ওসি রাকিবুল ইসলাম বলেন, বাধাইড় ইউপির ঝিনাখোর মৌজায় বাচ্চু মিয়ার সরিষার ক্ষেতে টিনের ছাউনি রেখে দখল করা চেষ্টা করছে যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিনসহ তার লোকজন। বাচ্চু থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশ তদন্ত করেছেন। তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থ্ ানেওয়া হবে।

  • 38
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে