বাগমারায় অবৈধ ইটভাটা গুড়িয়ে দিচ্ছে ভ্রাম্যমান আদালত

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৩, ২০২০; সময়: ৮:১৬ pm |

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় অবৈধ ইটভাটায় এ্যাক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছেন রাজশাহীর পরিবেশ অধিপ্তরের কর্মকর্তারা। জরিমানা ছাড়াই গুড়িয়ে দিয়েছে অবৈধ ইটভাটা গুলো। এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান চলছিল বলে জানা গেছে।

জানা যায়, গত সপ্তাহে রাজশাহী থেকে প্রকাশিত সর্বাধিক অন-লাইন পদ্মা টাইম্স ডট কমসহ স্থানীয় ও জাতীয় একাধিক পত্রিকায় বাগমারায় অবৈধ ইটভাটায় পুড়ছে কাঠ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদ প্রকাশের পরই পরই নড়েচড়ে বসে রাজশাহীর পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা।

বুধবার বেলা সাড়ে ১০ টার দিকে রাজশাহীর পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বাগমারায় আসেন এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার বিষয়টির জন্য সহযোগীতা কামনা করেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের সহযোগীতা করার জন্য এ্যাক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহামুদুল হাসানকে নির্দেশ দেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশ মোতাবেক সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহামুদুল হাসান পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা, ফায়ার সার্ভিস সহ কর্মকর্তা ও ড্রেজার ম্যাসিন নিয়ে উপজেলার আউচপাড়া ইউনিয়নের কানাইশহর মাসুম মৃধার ও একই ইউনিয়নের বামনীগ্রামের দুলাল হোসেনের অবৈধ ড্রামচিমনীর ইটভাটা গুড়িয়ে দেয়। এছাড়াও ভ্রাম্যমান আদালতের দলটি উপজেলার গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের দামনাশ গ্রামের সাইফুল ইসলাম ও একই ইউনিয়নের সুতিয়াপাড়ার দেওপাড়া গ্রামের শহিদুল ইসলাম ও বাবুল হোসেনের অবৈধ ড্রামচিমনীর ইটভাটা গুড়িয়ে দেয়।

এছাড়াও উপজেলার সকল এলাকার অবৈধ ড্রামচিমনীর ইটভাটা গুলো গুড়িয়ে দেয়া হবে বলে ভ্রাম্যমান আদালতের এ্যাক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট মাহামুদুল হাসান জানান। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় রাজশাহীর পরিবেশ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মনির উদ্দীন উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে ভ্রাম্যমান আদালতের এ্যাক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভুমি) মাহামুদুল হাসান জানান, সকল থেকেই অবৈধ ড্রামচিমনীর ইটভাটা গুলোতে অভিযান চলছে। অভিযানে বিকেল সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত দুইটি ইউনিয়নের ৫টি অবৈধ ড্রামচিমনীর ভাটা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। রাত পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

  • 187
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে