রাজশাহীর ওষুধ ব্যবসায়ীদের ধর্মঘটের আল্টিমেটাম

প্রকাশিত: নভেম্বর ২৬, ২০২০; সময়: ১০:২২ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি-বিসিডিএস রাজশাহী শাখার তালাবদ্ধ অফিস খুলে দিয়ে নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরুর দাবি জানিয়েছে ওষুধ ব্যবসায়ীরা। সাত দিনের মধ্যে দাবি না মানলে ওষুধের দোকান বন্ধ রেখে ধর্মঘটে যাবার ঘোষণা দিয়েছে তারা। বৃহস্পতিবার বিকালে নগরীর লক্ষীপুর মোড়ে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে এই ঘোষণা দেওয়া হয়।

বিসিডিএস রাজশাহী শাখার সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি আলহাজ¦ হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আনসারুল হক খিচ্চু ও রফিকুল ইসলাম শামীম। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সেলিম আসলাম পারভেজ, শিমুল আহম্মেদ পলাশ, রেজাউল করিম রঞ্জু, শহীদুল্লাহ খান ডন, মারুফ আহম্মেদ তারেক, শফিকুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

এর আগে বিসিডিএস রাজশাহী শাখার সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি আলহাজ¦ হারুন-অর-রশিদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি আশপাশের এলাকা প্রদক্ষিণ করে আবারো লক্ষীপুর মোড়ে গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি-বিসিডিএস রাজশাহী শাখার নির্বাচিত কমিটির মেয়াদ ২০১০ সালে শেষ হয়। এরপর কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে দফায় দফায় মেয়াদ বাড়িয়ে সর্বশেষ কার্যনির্বাহী কমিটি ২০১৯ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করে। ২০১৯ সালে নির্বাচনী তফশিল ঘোষণা করা হলে ওষুধ ব্যবসায়ীদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসে। নির্বাচনে দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিলে নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে।

নির্বাচনের ৭২ ঘন্টা আগে একটি প্যানেল নিজেদের ভরাডুবি আঁচ করতে পেরে নির্বাচন কমিশনকে পদত্যাগে বাধ্য করে। ফলে নির্বাচন বাতিল হয়ে যায়। এরপর বরিশালের কাজী কামালকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতকারী দুই পক্ষের সাথে একাধিক বৈঠক করে অতি দ্রুত নির্বাচনী প্রক্রিয়া শুরুর ঘোষণা দেয়। কিন্তু তারা কয়েকদিনের মধ্যে অফিস তালাবদ্ধ করে নিজেদের ঘোষণা থেকে সরে যায়।

  • 23
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে