‘রাষ্ট্রকেই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে দায়িত্ব নিতে হবে’

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৭, ২০২০; সময়: ৩:৩১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাষ্ট্রকেই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে দায়িত্ব নিতে হবে। এই করোনাকালীন সময়ে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীতে প্রণোদনা দেয়া হলে প্রান্তিক মানুষের দারিদ্র্যের হার অনেক কমে আসতো। রাজশাহীতে মঙ্গলবার প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার, পরিস্থিতি উন্নয়নে ভূমিকা ও দায়বদ্ধতা শীর্ষক সেমিনারে এমন দাবি করেছেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা।

তিনি বলেন, বৈষম্যহীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সংবিধানের সকল অধিকার সবাইকে জানাতে হবে, তবেই সুষম অধিকার প্রতিষ্ঠা সম্ভব।

সকালে রাজশাহীর স্থানীয় এক রেস্তোরায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের প্রায় শতাধিক মানবাধিকার কর্মী, জনপ্রতিনিধি, উন্নয়ন কর্মী ও সুশীল সমজের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। উন্নয়ন সংস্থা ডাসকো ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আকরামুল হকের সভাপতিত্বে উক্ত সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন উন্নয়ন কর্মী হান্নান বিশ্বাস।

সেমিনারের শুরুতেই প্রবন্ধ উপস্থাপনে হান্নান বিশ্বাস বলেন, বাংলাদেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের ০৬ জেলায় যে সমীক্ষা চালানো হয়,সেখানে দেখা যায় নারী ও আদিবাসীসহ প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর প্রতি সহিংসতা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটছে। আইনী দাবী এবং প্রশাসনের সেবা গ্রহনে রয়েছে সীমাবদ্ধ প্রবেশাধিকার। মানবাধিকার কর্মীদের ও নাগরিক সমজের জন্য সীমাবদ্ধ পরিস্থিতি ও সংগঠনগুলির অপর্যাপ্ত দক্ষতা রয়েছে। অহিংস প্রক্রিয়ায় দ্বন্দ্ব নিরসনের কোনোও প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো নেই।

এসমময় মানবাধিকার নিয়ে আইনের অধিকার প্রতিষ্ঠায় নিজ নিজ জায়গা থেকেই কাজ করতে হবে,এতে সরকারের পাশাপাশি সকল পক্ষকেই এগিয়ে আসতে হবে সেমিনারে এমনটাই জানান রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক আব্দুল হান্নান।

এদিকে সেমিনারে নেটজ বাংলাদেশের পরিচালক শহিদুল হক বলেন, অধিকার রক্ষায় সরকারকে চাপে ফেলে নয় নিয়ম মেনে বুঝিয়েই সম অধিকার প্রতিষ্ঠা সম্ভব। নিজ নিজ জায়গায় অধিকার রক্ষায় নিজেদেরকেই সবার আগে এগিয়ে আসতে হবে। এক্ষেত্রে ঘর থেকে পা ফেলা থেকে শুরু করে অফিস বা সকল স্থানে অন্যকে সম্মান দিয়ে অন্তত প্রান্তিকের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে।

রাজশাহী ও রংপুর অঞ্চলে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর ক্ষমতায়নে সামাজিক অংশিদারিত্ব বৃদ্ধি বা প্রসপেক্ট প্রজেক্ট বাস্তবায়নে ডাসকো ফাউন্ডেশন ও পল্লীশ্রীকে নেটজ বাংলাদেশ কারগরী সহযোগিতা দিয়ে আসছে।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপ-উপাচার্য ও বিশিষ্ট পরিবেশ ও পানি বিষয়ক বিশেষজ্ঞ চৌধুরী সারওয়ার জাহান সজল সেমিনের বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বলেন, দেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের প্রান্তিক মানুষকে দারিদ্রতা থেকে রক্ষায় সমঅধিকার প্রতিষ্ঠার কোনো বিকল্প নেই। এক্ষেত্রে বেসরকারি উন্নয়ন প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রায় চারঘন্টাব্যাপী আলোচনা সভায় মানবাধিকার নিয়ে আরো গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন দৈনিক সোনারদেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক হাসান মিল্লাত,রাজশাহী সমাজ সেবা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হাসিনা মমতাজসহ অংশগ্রহনকারী বেশ কয়েকজন।

  • 5
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • রাজশাহীতে বালু তুলতে পদ্মা ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ
  • মৌলবাদের আস্ফালন সংস্কৃতি দিয়ে রুখতে হবে : সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
  • রাজশাহীর ওষুধ ব্যবসায়ীদের ধর্মঘটের আল্টিমেটাম
  • মোহনপুরে সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসি’র মত বিনিময়
  • তানোরে উন্নয়ন মাসিক সাধারণ সভা
  • নিয়োগ বিধি সংশোধনসহ বেতন আপগ্রেডেশন দাবিতে কর্মবিরতি
  • বাঘার মিনি কারখানায় স্বচ্ছলতার স্বপ্ন
  • বাগমারায় যুবককে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টার অভিযোগে মামলা
  • কেশরহাটে সাংবাদিকদের সাথে মেয়র শহিদের নির্বাচনী মতবিনিময়
  • বাগমারার শোলাবিল ও পদ্মবিলে জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবী এলাকাবাসীর
  • শহীদ কামারুজ্জামানের বাড়িতে কৈশরে আশ্রীত মর্জিনার মানবেতর জীবন যাপন
  • পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তৎপরতা শুরু
  • দুর্গাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টিএইচও স্টান্ড রিলিজ
  • এসিডির নারী ও শিশুর প্রতি নির্যাতন প্রতিরোধে নাটক প্রদর্শন
  • মুক্তিযুদ্ধের সুফল ঘরে ঘরে পৌঁছানোর আহবান
  • উপরে