অপরাধীকে একচুলও ছাড় দেওয়া হবে না : আরএমপি কমিশনার

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৭, ২০২০; সময়: ২:১১ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : ধর্ষক, মাদক ব্যবসায়ী, কিশোর গ্যাংসহ সকল অপরাধীর উদ্দেশ্যে হুঁশিয়ারী দিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ (আরএমপি) কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক। শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকালে, রাজশাহী নগরীর সাহেববাজার জিরো পয়েন্টে ‘নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বিরোধী’ বিট কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমিশনার এসব কথা বলেন। রাজশাহী নগরীর বোয়ালিয়া মডেল থানা এর আয়োজন করে। আরএমপির বিভিন্ন বিট পুলিশিং কমিটির সদস্যরা নারী নির্যাতনবিরোধী আলাদা আলাদা র‌্যালি নিয়ে এই সমাবেশে যোগ দেন।

এসম তিনি বলেন, ‘কোনো অপরাধীকে ছাড় দেওয়া হবে না। গত ১০ অক্টোবর রাজশাহীতে কমিশনার হয়ে এসেছি। প্রয়োজন হলে ১০ দিনেই রাজশাহী ছেড়ে চলে যাবো, তবুও কোনো অপরাধীকে ছাড় দেব না। ধর্ষণ, মাদক, কিশোর গ্যাংসহ সকল অপকর্মকারীর মূল উৎপাটন করাই হবে আমার শপথ।’

এসময় আবু কালাম সিদ্দিক আরো বলেন, ‘দায়িত্ব নিয়ে কিশোর গ্যাং, মাদক ও ইভটিজিং প্রতিরোধে অভিযান শুরু করেছি। মাত্র কয়েক দিনের ব্যবধানে দেখবেন রাস্তার ধারে কিশোর গ্যাংদের আড্ডা নেই। বখাটেরা ইভটিজিং করতে ভয় পাচ্ছে। এসব অপকর্ম নির্মূলে আমরা আরো কঠোর হবো। আরএমপি এলাকা সম্পূর্ণ সিসি টিভির আওতায় আনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দ্রুতই এটির বাস্তবায়ন হবে।’

তরুণ প্রজন্মকে সঠিক পথে পরিচালিত করতে সকল পিতা-মাতার প্রতি আহ্বান জানিয়ে কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক বলেন, ‘আপনার সন্তান প্রতিদিন সন্ধ্যার পর কোথায় যায় সেটি খোঁজ নিন। কার সঙ্গে মেশে সেটির প্রতি নজর দিন। এরাই আগামী দিনের বাংলাদেশ। তাদেরকে নৈতিক শিক্ষা দিন। মুসলিমরা আপনার সন্তানকে নামাজ-কুরআন শিক্ষা দিন, অন্য ধর্মাবলাম্বীরা আপনাদের সন্তানকে ধর্মীয় গ্রন্থ পড়তে উৎসাহিত করুন। তারা নৈতিকতা শিখবে।’

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী এই সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন আরএমপির অতিরিক্ত কমিশনার সুজায়েত ইসলাম ও সালমা বেগম। সভাপতিত্ব করেন আরএমপির বোয়ালিয়া জোনের উপ-কমিশনার সাজিদ হোসেন।

এদিকে রাজশাহীর কাটাখালি থানা পুলিশের ৭ নং বিটের আয়োজনে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে পবা উপজেলার হরিয়ান ইউনিয়নে জয়পুর দারুল ইসলাম দাখিল মাদ্রাসার সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

কাটাখালি থানার এসআই ও ৭নং বিট অফিসার শাহীন মাহমুদ সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, হানিফ মোহাম্মদ পলাশ, সাখওয়াত হোসেন শাকি, ওমর ফারুক ভাদু, ইউপি’র সদস্য আক্কাস আলী, মমতাজ মন্ডল, আওয়ামী লীগ নেত্রী লিলি বেগম প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সামাজিক শৃঙ্খলা এবং জনগণের শান্তি ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ পুলিশ ধর্ষক এবং নারী ও শিশু নির্যাতনকারীদের বিচারের আওতায় আনার জন্য পেশাদারিত্বের সঙ্গে কাজ করছে। দেশের সেবা ও জনকল্যাণে পুলিশ সব সময় আন্তরিকতার সঙ্গে জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে। এ ধরনের ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে সকলকেই সামাজিক সচেতন হতে হবে । দেশের সেবা ও জনগণের কল্যাণে সর্বোচ্চ আন্তরিকতা নিয়ে সর্বদা সর্বতোভাবে জনগণের পাশে রয়েছে পুলিশ।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা পোস্টার, লিফলেট, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শনের মাধ্যমে জনসাধারণকে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে সহকারী বিট অফিসার এসআই আজাহারুল ইসলামের সঞ্চালনায় উপস্থিত ছিলেন,শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, থানা পুলিশের অন্যান্য অফিসারবৃন্দ ও স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মী।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • এবার দুর্গাপূজায় হবে না উৎসব
  • অপরাধ দমনে বিট পুলিশিং অগ্রণী ভূমিকা রাখবে : ডিআইজি
  • প্রযুক্তি নির্ভর পুলিশ বাহিনী গড়ে তোলা হচ্ছে : প্রতিমন্ত্রী পলক
  • নওহাটা মেয়রের বিরুদ্ধে নারী কাউন্সিলরের অভিযোগ
  • অপরাধীকে একচুলও ছাড় দেওয়া হবে না : আরএমপি কমিশনার
  • ফেনীতে ধর্ষণবিরোধী লংমার্চে হামলা
  • বিএনপির এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে : সালাহ্ উদ্দিন
  • সিরাজগঞ্জে যমুনায় মা ইলিশ ধরায় ২৪ জেলেকে কারাদন্ড
  • দেশে ‘মনিপুরী ইলিশ’ মাছের পোনা উৎপাদন ও চাষে নিষেধাজ্ঞা
  • করোনায় আক্রান্ত তথ্যমন্ত্রী
  • কৃষি উৎপাদন বাড়াতে ডিজিটাল প্রযুক্তি কাজে লাগাচ্ছে সরকার
  • আগামী বছর নিজস্ব ব্র্যান্ডের গাড়ি তৈরি করবে বাংলাদেশ
  • সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৪জন হাসপাতালে ভর্তি
  • শিবগঞ্জে পদ্মায় ডুবে কৃষকের মৃত্যু
  • নাটোরে ট্রাক-মোটর সাইকেল সংঘর্ষে নারী নিহত
  • উপরে