বাগমারায় সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন (ভিডিও)

প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২০; সময়: ৪:৩১ pm |

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক, বাগমারা : রাজশাহীর বাগমারায় বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে। উপজেলা সদরের সঙ্গে চারটি ইউনিয়নের ও বান্দাইখাঁড়া সড়কের যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। সড়ক ভেঙ্গে উপজেলার নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। ফকিন্নি নদীর পানি বিপৎসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার এবং বারানই নদের পানি ৫৬ সেন্টিমিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। স্থানীয় সাংসদ ঢাকা থেকে এলাকায় ফিরে বন্যাকবলিত এলাকার কিছু অংশ পরিদর্শন ও ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন।

বন্যায় এরইমধ্যে ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাঁড়া সড়কের বড়বিহানালী ইউনিয়নের ছোটকয়া এলাকায় ভেঙ্গে যায়। এসময় প্রবল বেগে পানি ফকিন্নি নদী ও বিলসূতি বিল থেকে বড়বিহানালীসহ উপজেলার পূর্বাঞ্চলে ঢুকে পড়ে। ফলে নতুন করে ঝিকড়া, মাড়িয়া ও বড়বিহানালী ইউনিয়ন এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়ে। পানির স্রোতের তোড়ে গাছপালা উপড়ে যাওয়া ছাড়াও এসব এলাকার রোপা আমন, সবজিখেত, বাড়িঘর তলিয়ে গেছে। শতাধিক পুকুরের মাছ ভেসে গেছে সড়কটি ভাঙ্গার কারণে।

এছাড়া ভবানীগঞ্জ-বান্দাইখাড়া সড়ক দিয়ে চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়াও আগের দিন ভবানীগঞ্জ-দ্বীপপুর সড়কের হাসানপুর এলাকায় ভেঙ্গে যায়। সড়ক দুইটি ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে উপজেলার সঙ্গে দ্বীপপুর, সোনাডাঙ্গা, নরদাশ ও বড়বিহানালী ইউনিয়ন যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। নৌকা ছাড়া লোকজন চলাচল করতে পারছেন না। এসব এলাকার লোকজন প্রায় পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছেন। এনিয়ে বন্যায় উপজেলার লক্ষাধিক লোক পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন।

রাজশাহী পানি উন্নয়ন বোর্ডের বরাত দিয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা রাজিবুর রহমান জানান, উপজেলার ভেতর দিয়ে প্রবাহিত ফকিন্নি নদীর পানি বিপৎসীমার ৯৬ সেন্টিমিটার ও বারনই নদের পানি ৫৬ সেন্টিমিটার উচ্চতায় প্রবাহিত হচ্ছে। নতুন করে উপজেলার ৫০০ হেক্টর জমির রোপা আমন ধান ও ১৫ হেক্টর জমির পানবরজ পুরোপুরি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

উপজেলার বড়বিহানালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদুর রহমান বলেন, ছোটকয়া এলাকায় সড়ক ভেঙে তাঁর ইউনিয়ন পুরোপুরি বন্যাকবলিত হয়ে পড়ে। এজন্য একাধিক আশ্রয় কেন্দ্র চালু করা হয়েছে। লোকজনকে উঁচু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

যোগিপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল বলেন, তাঁর এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে। বিপুল পরিমান ক্ষতি হয়েছে বন্যায়ে।আজ বৃহস্পতিবার সকালে ইউনিয়নের ২০০জন বন্যাদুর্গত পরিবারের মধ্যে ১ কেজি করে জিআর এর চাল দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মাসুদুর রহমান বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত লোকজনের তালিকা ও ক্ষতির পরিমান সংগ্রহ করা হচ্ছে। বন্যা মোকাবিলা ও লোকজনের সহায়তা করার জন্য সরকারিভাবে সব ধরণের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও সরকারিভাবে বরাদ্দ জিআর এর চাল বিতরণ শুরু হয়েছে।

এদিকে পানিবন্দি লোকজনের কাছে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছেন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক। বৃহস্পতিবার বেলা ১০ টায় বন্যাদূর্গত উপজেলার কাচারী কোয়ালীপাড়া ইউনিয়ন এবং ভবানীগঞ্জ পৌরসভার বিভিন্ন স্থান নৌকায় চড়ে পরিদর্শন করেন। সেইসঙ্গে খাদ্য সংকটে থাকা লোকজনের হাতে ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেন।

এ সময় ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এমপি বলেন, বন্যা একটি প্রাকৃতিক দূর্যোগ। প্রাকৃতিক এই বিপর্যয়ের হাত থেকে নিজেসহ পরিবারের সকলকে রক্ষা করতে হবে। বন্যায় যাদের বাড়িঘর ভেঙ্গে পড়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে তাদেরকে বাড়ি তৈরি করে দেয়া হবে।

  • 39
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • আগামী বছর নিজস্ব ব্র্যান্ডের গাড়ি তৈরি করবে বাংলাদেশ
  • সারা দেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৪জন হাসপাতালে ভর্তি
  • শিবগঞ্জে পদ্মায় ডুবে কৃষকের মৃত্যু
  • নাটোরে ট্রাক-মোটর সাইকেল সংঘর্ষে নারী নিহত
  • বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে নতুন উদ্যোগ
  • ইউএনওর চলন্ত গাড়িতে ঢুকে পড়ল বিশালাকৃতির সাপ!
  • পেঁয়াজে স্বয়ংসম্পূর্ণ হবে দেশ
  • দেশে একদিনে ১৫ মৃত্যু, আক্রান্ত কমেছে
  • ১৮ অক্টোবর থেকে তিন ঘণ্টা ইন্টারনেট সেবা বন্ধ!
  • প্রতিটি ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে সরকার বদ্ধপরিকর : প্রধানমন্ত্রী
  • নওগাঁ-৬ আসনে ভোটগ্রহণ শনিবার
  • ধর্ষণের বিরুদ্ধে সারা দেশে পুলিশ সমাবেশ শনিবার
  • বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর জন্য চীন থেকে এল ৭ বিমান
  • কারাগারে ফাঁসির আসামি যুদ্ধাপরাধী মাহবুবুরের মৃত্যু
  • ইরান ইস্যুতে বুদ্ধিবৃত্তিক পরিচয় দিক যুক্তরাষ্ট্র: রাশিয়া
  • উপরে