রাজশাহী বিভাগে আরও বাড়ল মৃত্যু ও আক্রান্ত

প্রকাশিত: মে ৩১, ২০২০; সময়: ২:৩৯ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী বিভাগে বেড়েই চলেছে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। একদিনে ৬৮ জন বেড়ে আক্রান্ত দাঁড়িয়েছে ৮৭৪ জনে। এ দিন বিভাগের আট জেলার মধ্যে চার জেলায় করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছে বগুড়ায় ২৯ জন। এছাড়াও নওগাঁয় ১৩ জন, জয়পুরহাট ১৫ ও সিরাজগঞ্জে ১১ জন। শনিবার দুপুরে এ তথ্য জানান রাজশাহী বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্র নাথ আচার্য্য।

তিনি জানান, গত ১২ এপ্রিল রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলায় বিভাগে প্রথম করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়। এরপর এ পর্যন্ত বিভাগের আট জেলায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৮৭৪ জনের। এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ২৪৫ জন। গত ২৪ ঘন্টায় একজন মারা যাওয়ায় করোনায় মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ জনে। করোনা জয় করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ২০৮ জন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের দেয়া তথ্য মতে, রাজশাহী বিভাগে এখন করোনার হটস্পট বগুড়া। এই জেলায় সবমিলিয়ে করোনা আক্রান্ত সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২২ জন। এর মধ্যে ৫৮ জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। করোনা জয় করেছেন ৩১ জন। করোনায় প্রাণ গেছে একজনের। বাকিরা হোম আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

বিভাগে আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে জয়পুরহাট। এ জেলায় এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত রোগি শনাক্ত হয়েছে ১৮৭ জনের। করোনা জয় করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ৭০ জন। আর নওগাঁয় বিভাগে তৃতীয় সর্বোচ্চ ১৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার একদিনে শনাক্ত হয়েছে ১৩ জন। এ দিন মারা গেছেন একজন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৬৩ জন।

রাজশাহীতে আক্রান্ত ৫১ জন। এখানকার ৮ করোনা রোগী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আর করোনা জয় করেছেন এখানকার ১৩ জন। তবে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন এক পুলিশ সদস্যসহ দুইজন।

নাটোরে আক্রান্ত ৫৫ জন। করোনা জয় করেছেন ১০ জন। করোনায় মারা গেছেন একজন। চাঁপাইনবাবগঞ্জে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে ৫৪ জনের। করোনা জয় করেছেন ১১ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৮ জন। বাকিরা হোম আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় সিরাজগঞ্জে ১১ শনাক্ত হয়েছে আক্রান্ত দাঁড়িয়েছে ৩৮ জন। আর পাবনা এখন পর্যন্ত আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৩৫ জনের। সিরাজগঞ্জে একজনের প্রাণ গেছে করোনায়। সুস্থ হয়েছেন তিনজন। আর পাবনায় সুস্থ হয়েছেন সাতজন।

বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য বলেন, রাজশাহী বিভাগে গত ১২ এপ্রিল প্রথম করোনা শনাক্ত হয়। এরপর আক্রান্তের সংখ্যাটি প্রতিদিনই বাড়ছে। পরিস্থিতি অবনতিরও আশঙ্কা রয়েছে। তাই এখন মানুষের সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই। করোনা মোকাবিলায় মানুষকেও সচেতন হতে হবে। অতি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হওয়া যাবে না। প্রয়োজনে বের হলে মাস্ক পড়তে হবে। বিশেষ করে সরকারের দেয়া সব নির্দেশনাবলী মানতে হবে। তাহলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে।

  • 457
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আরও খবর

  • নওগাঁয় মৃত্যুর ৮দিন পর রিপোর্ট পজেটিভ, নতুন শনাক্ত ১৮
  • সর্বোচ্চ সংক্রমণে ভারতে আক্রান্ত সাড়ে ৬ লাখ
  • করোনার চিকিৎসায় রেমডেসিভির অনুমতি ইইউ’র
  • রাবি শিক্ষক ড. ফখরুলের মৃত্যু করোনায়
  • রাজশাহী অঞ্চলে করোনায় নতুন সংক্রমিত ২১৬, মৃত্যু ৭
  • শিবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
  • সৌদি ও কাতার থেকে ফিরলেন ৮০০ বাংলাদেশি
  • বিসিএস দিতে চান নুর
  • লক্ষ্মীপুরে ট্রাক-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত ২
  • রাজশাহীসহ দেশের ১৩ অঞ্চলে ঝড়ের আশঙ্কা
  • সিঙ্গাপুর-কুয়ালালামপুর রুটে বিমানের ফ্লাইট স্থগিত
  • বিএনপির সাবেক মন্ত্রী গিয়াস উদ্দিন আর নেই
  • আসিফের বিরুদ্ধে মামলা করলেন মুন্নি
  • পরীক্ষা ছাড়াই দ্বিতীয় বর্ষে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা
  • বর্তমানের করোনা দ্রুত ছড়ালেও বেশি অসুস্থ হচ্ছে না
  • উপরে