রুয়েট শিক্ষককে মারধর, সাতদিন পর স্ত্রীর মামলা

প্রকাশিত: আগস্ট ১৬, ২০১৯; সময়: ৮:৪৩ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক : স্ত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদ করায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষক রাশিদুল ইসলামকে মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে রাশিদুল ইসলামের স্ত্রী তাবাসসুম ফারজানা বাদী হয়ে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেছেন।

বোয়ালিয়া থানার ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, মামলায় অজ্ঞাতনামা মোট আটজনকে আসামি করা হয়েছে। এদের মধ্যে চারজন ছেলে এবং চারজন মেয়ে। তাদের সবার বয়স থেকে ২০ বছরের মধ্যে বলে মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে।

গত ১০ আগস্ট রাতে রাজশাহী মহানগরীর ব্যস্ততম মনিচত্বর এলাকায় বখাটেদের পিটুনির শিকার হন রুয়েটের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের শিক্ষক রাশিদুল ইসলাম। তিনি ‘প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক’ প্রাপ্ত একজন শিক্ষক।

এ নিয়ে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি পোস্ট দেন। সেখানে তিনি বলেন, আশপাশে অনেক মানুষ দাঁড়িয়ে দেখলেও কেউ তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেননি। তার এই পোস্ট ভাইরাল হয়ে যায়। অবশেষে ঘটনার ছয়দিন পর থানায় মামলা করলেন ভুক্তভোগী শিক্ষকের স্ত্রী।

ওসি নিবারণ চন্দ্র বর্মণ বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। আশপাশে থাকা ক্লোজ সার্কিট (সিসি) ক্যামেরার ফুটেজ দেখেছেন। কিন্তু কিছু বুঝতে পারেননি। এ ঘটনার কোনো প্রত্যক্ষদর্শীও পাওয়া যাচ্ছে না। তবে তারা বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে তদন্ত কাজ শুরু করেছেন। জড়িতদের দ্রুতই শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে