‘আলোর ফেরিওয়ালা’ পাঁচ মিনিটেই বিদ্যুৎ সংযোগ

প্রকাশিত: মে ১২, ২০১৯; সময়: ৫:২৮ pm |

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা : যোগাযোগ করলেই বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে যাচ্ছে বিদ্যুৎ। ভ্যানে ‘আলোর ফেরিওয়ালা’ বিল বোর্ড ও ফেস্টুন ঝুলিয়ে ৫ মিনিটেই এ সংযোগ দিচ্ছেন নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২। ‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ কার্যক্রম সফল করতে চলতি রমজান মাসে বিশেষ সেবা হিসাবে রাজশাহীর বাঘায় প্রতিটা বাড়ি-বাড়ি গিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ দিচ্ছেন নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ২ এর বাঘা সাব-জোনাল অফিস।

রোববার উপজেলার ফতেপুর বাউসা গ্রামের মানজুল ইসলাম,দুড়দুড়িয়ার আবু বকর সিদ্দিক,আড়পাড়ার সুক্তি বেগম,পাকুড়িয়ার সাহাবুলের বাড়িসহ ৪০টি বাড়িতে পাঁচ মিনিটের মধ্যেই বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়।

সাব জোনাল অফিসের অভিযোগ কেন্দ্রের ইনচার্জ লাইনম্যান গ্রেড-১ আসাদুজ্জামান জানান,৫টি গ্রুপে লাইন স্থাপনের কাজ করেছেন লাইনম্যান গ্রেড-১ গোলাম রুসুল,লাইন ম্যান গ্রেড-১ তরিকুল ইসলাম,লাইনম্যান গ্রেড-২ শামীম হোসেনসহ তাদের কর্মীরা।

আড়পাড়া গ্রামের নতুন বিদ্যুৎ লাইন পাওয়া মুক্তি বেগম বলেন, ‘আজ আমি নতুন বিদ্যুৎ লাইন পাইছি, আমার ফটো ও কাগজ দিতে কিছু সময় দেরি হইছে কিন্তু বিদ্যুৎ লাইন পাইতে মাত্র পাঁচ মিনিট সময় লাগছে।
নাটোর পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি ২-এর অধীন বাঘা সাব-জোনাল অফিসের সহকারি জেনারেল ম্যানেজার শাহিনুর আলম মৃধা জানান, শেখ হাসিনার উদ্যোগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ কার্যক্রম সফল করতে পল্লী বিদ্যুতের চেয়ারম্যানের নির্দেশে আমরা এ কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে বাঘায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন সফল হয়েছে। এখন যাদের নতুন মিটারে বিদুৎ সংযোগ দেয়া হচ্ছে তাদের কেউ নতুন বাড়ি নির্মান করেছেন অথবা পরিবার থেকে আলাদা হয়েছেন। সংযোগ নিতে একজন গ্রাহকের ব্যয় হচ্ছে ওয়ারিং বাবদ মাত্র ৫শ’ ৫০ টাকা। পাঁচ মিনিটে (প্রতিটি সংযোগ) বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে মিটার স্থাপন করেছি। প্রতিটি ঘরে বিদ্যুৎ সংযোগ স্থাপন না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ কর্মসূচি চালিয়ে যাব।

গ্রাহকরা ১০০ টাকা ফরমে আবেদনের মাধ্যমে ৪০০ টাকা জামানত এবং ৫০ টাকা সদস্য ফি জমা দিয়ে ওয়ারিং সম্পন্ন করবেন। এরপর আমাদের সাথে যোগাযোগ করলে মাত্র ৫-থেকে ১০ মিনিটের মধ্যে আমরা সংযোগ প্রদান করবো।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
উপরে